রবীন্দ্রনাথের সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর চিন্তার মিল রয়েছে: ঢাবি ভিসি

অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান
অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান  © টিডিসি ফটো

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেছেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন রবীন্দ্রনাথের গভীর অনুরাগী এবং রবীন্দ্রনাথের সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর চিন্তার মিল রয়েছে। সকল মহামানবের চিন্তা এক জায়গায় পুঞ্জীভূত হয়।

রবিবার (৮ মে) সকাল ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের অডিটোরিয়ামে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৬১তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত ‘মানবতার সংকট ও রবীন্দ্রনাথ’ শীর্ষক আলোচনা সভার সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ঢাবি ভিসি বলেন, মানবতার সংকট নিরসনে প্রাচ্যের প্রতি যে প্রত্যাশা ছিল রবীন্দ্রনাথের তা পূরণে বঙ্গবন্ধু ভূমিকা রেখেছিলেন তাতে কোনও সন্দেহ নেই। সে কারণে আজ এই দুই মহামানবের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করছি। কেননা, সব মহামানবের চিন্তা এক জায়গায় পুঞ্জীভূত হয়, সকল উদার চিন্তা এক জায়গায় গিয়ে মেশে, সব উদার চিন্তাই শাশ্বত।

আরও পড়ুন: আজ ২৫ শে বৈশাখ

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রবীন্দ্রনাথের গভীর অনুরাগী ছিলেন। বঙ্গবন্ধুর নির্দেশনায় বাঙালি গণমানুষ সম্মিলিতভাবে একটি কঠিন সংকট উতরে যে স্বাধীন-সার্বভৌম রাষ্ট্রের জন্ম দিতে সক্ষম হয়েছে, এটি বঙ্গবন্ধুর কাছে একটি পরম তৃপ্তির বিষয়।

বঙ্গবন্ধু রবীন্দ্রনাথকে ধারণ করেছেন উল্লেখ করে ঢাবি ভিসি আরও বলেন, রবীন্দ্রনাথকে ধারণ করেন বলেই বঙ্গবন্ধু তখন বলেছিলেন, কবিগুরু আপনি দেখে যান বাঙালি কিন্তু মানুষ হয়েছে। রবীন্দ্রনাথ অন্য প্রসঙ্গে কথাগুলো বললেও সেদিন এই কথা দ্বারা রবীন্দ্রনাথের প্রতি বঙ্গবন্ধুর অনুরাগের বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগীয় চেয়ারম্যান, শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা কর্মচারীরা। আলোচনা সভা শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের সংগীত ও নৃত্যকলা বিভাগের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।


x