বই, বিছানাপত্র নিয়ে ওসমানী মেডিকেল শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

বই, বিছানাপত্র নিয়ে ওসমানী মেডিকেল শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ
  © সংগৃহীত

আবাসিক হল সংস্কারসহ বিভিন্ন দাবিতে বিছানাপত্র নিয়ে বিক্ষোভ করেছেন সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা। এ সময় কলেজের দেড় শতাধিক শিক্ষার্থীকে বইপত্র ও তোশক নিয়ে অবস্থান করতে দেখা যায়।

কলেজের প্রশাসনিক ভবন ও কলেজ ক্যাম্পাসে বুধবার সকাল থেকে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ প্রদর্শন শুরু করেন। পরে কলেজের উপাধ্যক্ষ দাবি পূরণের আশ্বাস দিলে দুপুরে শিক্ষার্থীদের কর্মসূচি শেষ হয়।

বিক্ষোভ চলাকালে দাবিসংবলিত প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করেন শিক্ষার্থীরা। তাতে লেখা ছিল ‘প্রশাসনের বানোয়াট ছল শামসুদ্দিন গেল রসাতল’, ‘প্রশাসনের গা-ছাড়া ভাব শামসুদ্দিনের অবস্থা খুব খারাপ’ ইত্যাদি।

শিক্ষার্থীদের কর্মসূচিতে ছাত্রলীগের মেডিকেল কলেজ শাখার সভাপতি সাইফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হাসানসহ সংগঠনটির নেতা-কর্মীরাও উপস্থিত ছিলেন।

বিক্ষোভরত শিক্ষার্থীরা বলেন, ১০ থেকে ১৫ বছর ধরে কলেজের আবাসিক ছাত্রাবাস এবং ছাত্রীবাসগুলো সংস্কার করা হচ্ছে না। হলের ভেতরে ছাদ থেকে পানি চুইয়ে পড়ে। বৃষ্টি হলে ছাদ থেকে পানি পড়ায় ঘুমাতে পারেন না শিক্ষার্থীরা।

শৌচাগারগুলো ভাঙাচোরার পাশাপাশি পানি থাকে না। হলের অভ্যন্তরে বৃষ্টির পানি জমে স্যাঁতসেঁতে হয়ে থাকে। একাধিকবার বিষয়গুলো কলেজ প্রশাসনের কাছে জানিয়েও কোনো প্রতিকার মেলেনি বলে জানান শিক্ষার্থীরা।

কলেজের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র নাইমুর রহমান বলেন, ছাত্র ও ছাত্রীদের হলে কোনো নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেই। রাতে বহিরাগতরা হলের অভ্যন্তরে ঢোকে। হলে একাধিকবার চুরির ঘটনাও ঘটেছে।

এদিকে শিক্ষার্থীদের কর্মসূচিতে ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের নৈতিক সমর্থন আছে বলে জানান ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হাসান। তিনি বলেন, যারা বিক্ষোভে অংশ নিয়েছেন, তারা সবাই সাধারণ শিক্ষার্থী। ছাত্রলীগের নৈতিক সমর্থন থাকলেও সংগঠন এতে অংশ নিচ্ছে না।

সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ শিশির রঞ্জন চক্রবর্তী বলেন, শিক্ষার্থীরা আন্দোলন নয়, দাবিদাওয়া নিয়ে এসেছিলেন। যেগুলো সমাধান সম্ভব, সেগুলো সমাধানের আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, যে হলের কথা বলা হচ্ছে, সেটি প্রায় শত বছরের পুরোনো। তাই যেগুলো জরুরি, সেগুলো সংস্কারের চেষ্টা করা হবে।


x