‘বিদ্যুৎ নেই, খাবার ও পানি শেষ— আমাদের জন্য দোয়া করবেন’

সুনামগঞ্জ
আটকে পড়া শিক্ষার্থীরা  © ফাইল ছবি

সুনামগঞ্জে বেড়াতে গিয়ে প্রাকৃতিক দুর্যোগে আটকা পড়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ২১ শিক্ষার্থী। সেখানে একটি হোটেলে আশ্রয় নিয়েছেন তারা। তবে সেই হোটেলেও পানি ঢুকে গেছে। এই অবস্থায় সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন আটকে পড়া শিক্ষার্থীরা।

শুক্রবার (১৭ জুন) গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে নিজেদের পরিস্থিতির কথা বর্ণনা করেন আটকে পড়া শিক্ষার্থী শোয়াইব আহমেদ।

তিনি বলেন, ‘‘আমরা সবাই এখানে আটকে আছি। হোটেলের নিচেও পানি ঢুকে গেছে। মহাসড়কগুলো ডুবে যাওয়ায় যান চলাচল বন্ধ। বিদ্যুৎ নেই, আমাদের মোবাইলও বন্ধ হয়ে গেছে। খাবার এবং পানিও শেষ। মোটর চালু করার কোনো সুযোগ নেই; তাই ওয়াশ রুমেও যাওয়া যাচ্ছে না। খুবই ভয়াবহ অবস্থা। কীভাবে এখান থেকে উদ্ধার হব জানি না। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন।’’

আরও পড়ুন: পদোন্নতি পেতে ঢাবি শিক্ষকদের পিএইচডি থাকা বাধ্যতামূলক

আটকে পড়া আরেক শিক্ষার্থী মিজানুর রহমান বলেন, রাতে কোনোভাবে এখানে উঠলেও আটকা পড়েছি। আমাদের সঙ্গে নারী সহপাঠীরা খুবই আতঙ্কের মধ্যে আছেন। বিভাগ এবং বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনে থেকে যোগাযোগ করেছে, আমাদের উদ্ধার করতে তারাও চেষ্টা করছেন।

এদিকে আটকে পড়া শিক্ষার্থীদের উদ্ধারে সেনাবাহিনীর সহায়তা চেয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আবুল মনসুর আহমেদ।

তিনি বলেন, আমি ডিপার্টমেন্টের চেয়ারম্যান হিসেবে র‍্যাবের ডিজি আবদুল্লাহ আল মামুনের সাথে কথা বলেছি। আইএসপিআর এর ডিরেক্টর কর্ণেল জাহিদের সাথে কথা বলেছি। কর্ণেল জাহিদের কাছে শিক্ষার্থীদের উদ্ধারে সেনাবাহিনী টিম পাঠানো জন্য অনুরোধ করেছি। তারা দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করার বিষয়ে আমাকে আশ্বস্ত করেছে।


x