ছাত্রলীগ নেতাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

ছাত্রলীগ
ছাত্রলীগ নেতার মরদেহ  © সংগৃহীত

গাজীপুরের শ্রীপুরে স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতাকে প্রকাশ্য পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) রাতে উপজেলার কাওরাইদ বাজারে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে।

নিহত ছাত্রলীগ নেতার নাম নয়ন শেখ (২৮)। তিনি পাশের বেলদিয়া গ্রামের আবদুল শেখের ছেলে। নয়ন শেখ কাওরাইদ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি পদপ্রার্থী ছিলেন।

স্বজনরা জানান, ক্রিকেট খেলা নিয়ে তর্কাতর্কির জেরে কার্যালয় থেকে ডেকে নিয়ে ছাত্রলীগ নেতা নয়ন শেখকে মারধর করেন স্থানীয় যুবলীগ নেতা খাইরুল ইসলাম মীর। এসময় দৌঁড়ে পালানোর সময় পুকুরে পড়ে ডুবে যায় নয়ন। পরে রাত ১০টার দিকে পুকুর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

আরও পড়ুন- বেশি আসন কমছে কলা অনুষদে, বাড়ছে বিজ্ঞানে

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিকেলে কাওরাইদ কেএনউচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ক্রিকেট খেলায় দুই পক্ষের খেলোয়াড়দের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। ওই হাতাহাতির ঘটনায় খেলোয়াড়দের একটি পক্ষ আরেক পক্ষকে দায়ী করে নয়ন শেখকে সুরাহার জন্য জানায়। ঘটনা জেনে নয়ন শেখ কাওরাইদ ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা খায়রুল মীরের ছেলে অনুভবকে (১৪) ডেকে তার অফিসে নিয়ে মারধর করে। খাইরুল ইসলাম মীর হলেন ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা। আসন্ন কমিটিতে তিনিও যুবলীগের সভাপতি প্রার্থী।

তারা আরও জানান, ওই ঘটনায় সন্ধ্যার পর কাওরাইদ বাজারে দেশিয় অস্ত্র হাতে মহড়া দেন খায়রুল মীরসহ তার সহযোগীরা। পরে রাত সাড়ে ৮টার দিকে নয়ন শেখকে দলের কার্যালয়ে প্রায় ঘণ্টা খানেক অবরুদ্ধ করে রাখে তারা। একপর্যায়ে দলের কার্যালয়ের ভেতর ঢুকে নয়ন শেখের ওপর হামলা চালান খায়রুলসহ তার লোকজন। সেখান থেকে দৌঁড়ে পালানোর সময় তাকে ধাওয়া করে মীরের লোকজন। পরে রেলওয়ের পাশে একটি পুকরে পড়ে যান নয়ন। সেখানেও তাকে বেদড়ক পেটায় হামলাকারীরা।

আরও পড়ুন- উপাচার্যের আশ্বাসে হলে ফিরলেন ছাত্রীরা

তবে অভিযোগ অস্বীকার করেন মীরের পক্ষের লোকজন। তারা জানান, ছেলেকে মারধর করার কারণ জানতে চাওয়ায় খায়রুল মীরকেও মারধর করেন নয়ন শেখ। এতে গ্রামবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে নয়ন শেখের ওপর হামলা চালায়। নিহত নয়ন শেখ একটি হত্যা মামলাসহ একাধিক মামলার আসামি ছিলেন।

শ্রীপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ইমতিয়াজ মাহফুজ জানান, মরদেহের শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন আছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।


মন্তব্য

x