৪৩তম বিসিএসের সার্কুলারও চলতি বছর

চলতি বছর হতে পারে ৪৩তম বিসিএসের সার্কুলার
৪৩তম বিসিএসের সার্কুলার চলতি বছর হতে পারে  © ফাইল ফটো

করোনাভাইরাসের কারণে আটকে আছে ৪০তম ও ৪১তম বিসিএসের কার্যক্রম। এরমধ্যেই করোনা মোকাবিলায় চিকিৎসক নিয়োগে ৪২তম বিশেষ বিসিএস আয়োজনের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এর আগে ৩৯তম বিশেষ বিসিএসেও চিকিৎসক নিয়োগ করা হয়। কিন্তু মাঝে দুই বিসিএসের কার্যক্রম বন্ধ রেখে ৪২তমের প্রক্রিয়া শুরু করায় ক্ষুব্ধ চাকরিপ্রার্থীরা। তবে বিশেষ বিসিএসের পাশাপাশি চলতি বছরই ৪৩তম সাধারণ বিসিএসের ঘোষণা আসতে পারবে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

চাকরিপ্রার্থীরা অভিযোগ করে আসছেন, করোনার অজুহাত দেখিয়ে ৪০তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার ফল আটকে রাখা হয়েছে। সেই সাথে ৪১তম বিসিএসের প্রিলিমিনারিও নেয়া হচ্ছে না। অথচ এরই মধ্যে নতুন করে ৪২তম বিসিএসের প্রক্রিয়া শুরু করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। আগে অসমাপ্ত বিসিএসের প্রক্রিয়া শেষ করে তবেই নতুন বিসিএস নিয়ে ভাবা দরকার বলে মনে করছেন তারা।

এ অবস্থায় করোনার মধ্যে সাধারণ বিসিএস পরীক্ষা আয়োজনের কাজ শুরুর উদ্যোগ নিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়গুলোর শূন্যপদগুলো জমা দেয়া হয়েছে জনপ্রশাসনে। আর সে তালিকা পেলে ৪৩তম সাধারণ বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি ডিসেম্বরের মধ্যেই প্রকাশ করবে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)।

ফলে আগামী দু’মাসেরও কম সময়ের মধ্যে দুটি বিসিএসের সার্কুলার প্রকাশ করতে যাচ্ছে পিএসসি। এ বিষয়ে জনপ্রশাসনসচিব শেখ ইউসুফ হারুন একটি গণমাধ্যমকে বলেন, ‘প্রয়োজনীয় কার্যক্রম চলছে সাধারণ বিসিএস নেওয়ার জন্য।’ এসময় তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, চলতি বছরের মধ্যেই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হতে পারে।

এদিকে করোনার কারণে সরকারি চাকরির আবেদনে বয়স ছাড়ের ঘোষণা দেওয়া হলেও বিসিএসের জন্য বয়স ছাড় দেওয়া হবে না বলে সূত্র জানিয়েছে। স্বাভাবিক সময়ের মতোই বিসিএস আয়োজনের কথা ভাবা হচ্ছে। সাধারণত অক্টোবর-নভেম্বরে বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ