অব্যাহতির ৫ দিনেও বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে গবি রেজিস্ট্রার

অব্যাহতির ৫ দিনেও বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে গবি রেজিস্ট্রার
গণ বিশ্ববিদ্যালয় ও গণস্বাস্থ্য মেডিকেলের ওয়েবসাইটে গবির সাবেক রেজিস্ট্রারকে দেখা যাচ্ছে  © টিডিসি ফটো

সম্প্রতি ছাত্রীর সাথে অশ্লীল ফোনালাপ ফাঁসসহ নানা অপকর্মে অভিযুক্ত সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয় (গবি) রেজিস্ট্রার মো. দেলোয়ার হোসেনকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। কিন্তু সিদ্ধান্তের ৫ দিন অতিবাহিত হলেও গণ বিশ্ববিদ্যালয় ও গণস্বাস্থ্য মেডিকেলের ওয়েবসাইটে তাকে এখনো দেখা যাচ্ছে।

আজ বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাতে পূর্বের মতোই ওয়েবসাইটে তার নাম লক্ষ্য করা যায়। অব্যাহতির পরও ওয়েবসাইটে তার নাম-ছবি থাকায় ক্ষুব্ধ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এছাড়া ওয়েবসাইটে আলাদাভাবে রেজিস্ট্রারের অব্যাহতির কোনো বিজ্ঞপ্তিও দেয়া হয়নি। শিক্ষার্থীরা এ ধরনের অসঙ্গতির প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের এক শিক্ষার্থী বলেন, উনাকে এতসব অপকর্মের পরে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। তাকে এখনও কি করে ওয়েবসাইটে রাখা হয়? এখানে কিছু ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাচ্ছি। আশা করবো, শীঘ্রই সম্ভব তার নাম দুই ওয়েবসাইট থেকে মুছে দেয়া হবে।

এদিকে শুধু নাম বহাল রাখাই নয়, রেজিষ্ট্রারের অব্যাহতির বিষয়ে কোন নোটিশও প্রকাশ করা হয়নি ওয়েবসাইট দুটিতে। ট্রাস্টি বোর্ডের সকলে সদস্যের সম্মতিক্রমে যাকে অব্যহতি দেওয়া হয়েছে তার নাম-পদবি এখনো বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে রাখা রহস্যজনক বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

সার্বিক বিষয়ে কথা বলতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) ডা. লায়লা পারভীন বানুর সাথে পরপর তিনদিন যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবার (৮ সেপ্টেম্বর) এক ছাত্রীর সঙ্গে রেজিস্ট্রারের অশ্লীল, কুরুচিপূর্ণ কথাবার্তা সম্বলিত ২৬ মিনিট ৩২ সেকেন্ডের একটি ফোনালাপ ফাঁস হয়। এ ঘটনার পর থেকে ক্যাম্পাসে তোলপাড় শুরু হয়। অবস্থার প্রেক্ষিতে গত ১২ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের এক জরুরি সভায় সকল সদস্যদের সম্মতিক্রমে তাকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।


মন্তব্য