তেলের দাম এক লাফে ৪০ টাকা বাড়াতে সাহস লাগে

খাঁ
শরিফুল হাসান   © টিডিসি ফটো

অভিনন্দন আপনাদের! খোলা বাজারের প্রতি লিটার সয়াবিন তেলের দাম এক লাফে ৪০ টাকা বাড়াতে সাহস লাগে। সাধারণ জনগণের কথা এতোটুকুও চিন্তা না করে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও ব্যবসায়ীরা সেই সাহস দেখিয়েছেন। অভিনন্দন তাদের! তবে বোতলজাত তেলের দাম প্রতি লিটারে ২০০ টাকা কেন করা হলো না বুঝতে পারছি না। 

দেখেন খোলা সয়াবিন তেল প্রতি লিটার ১৪০ টাকা থেকে ১৮০ টাকা করা হলো, তাহলে বোতলজাত তেলের দাম ১৬০ টাকা থেকে কেন ২০০ টাকা হবে না? কেন দুই টাকা কম রাখা হলো? এটা ঠিক হয়নি। দুই টাকা দাম বাড়ানোর জোর দাবি জানাচ্ছি।

আমি মনে করি ৩৮ টাকা দাম বাড়িয়ে ১৬০ টাকার তেলের বোতল ১৯৮ না করে একেবারে দুইশ টাকা করা দরকার ছিল। আর পাঁচ লিটার হাজার করে দিলেই তো হয়। একবছরে চারবার দাম বাড়িয়ে পাঁচ লিটারের তেলের দাম ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা করা নিশ্চয়ই উন্নয়নেরই বার্তা দেয়!

আর এই দেশটা তো কবেই ইউরোপ সিঙ্গাপুর হয়ে গেছে। কাজেই ইচ্ছে মতো দাম বাড়াতে সমস্যা কোথায়? আরো বাড়ান। আর সারাজীবন জানতাম দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেয় সরকারি কর্তৃপক্ষ। এখন দেখছি ব্যবসায়ীরা প্রেস রিলিজ দিয়ে দাম বাড়িয়ে দেয়। এটাও একটা অগ্রগতি। 

দয়া করে হুজুরেরা যদি আমাদের সয়াবিনের বিকল্প কী হতে পারে শিখিয়ে দিতেন! আচ্ছা আমাদের কী পুরোনো সরিষা তেলের যুগে নিয়ে যাওয়া যায় না? কিংবা দেশজুড়ে সয়াবিনের চাষ করা যায় না? যাই হোক এসব তো আপনাদের ভাবার দরকার নেই। গোস্তাকি মাফ করবেন!  আপনারা ব্যবসা করেন। জনগণ মরলে মরুক, আপনাদের সবার কল্যাণ হোক। 

আর এই যে গত কয়েকদিন সুপারস্টোর থেকে শুরু করে পাড়ার দোকান কোথাও সয়াবিন পাওয়া যাচ্ছিল না কাল থেকে নিশ্চয়ই জাদুতে সয়াবিন মিলবে। অভিনন্দন আপনাদের সবাইকে। আর এই যে যুদ্ধের কথা বলে দাম বাড়ালেন যুদ্ধ যদি কোনদিন বন্ধও হয়, আন্তর্জাতিক বাজারে দামও কমে, আপনারা কিন্তু কমাবেন না। কারণ, গত ৪০ বছরে কোনদিন সয়াবিন তেলের দাম কমতে শুনিনি। 

আর যেহেতু সয়াবিনের দাম বেড়েছে এবার বাকি সব কিছুর দাম বাড়ানোর দাবি জানাচ্ছি। বাড়িওয়ালারা ভাড়া বাড়ান, বাস মালিকরা বাস ভাড়া, ঘুষখোররা ঘুষের রেট বাড়ান। কষ্ট পেলে জনগণ পাবে আপনাদের কী? আপনাদের জয় হোক!


x

সর্বশেষ সংবাদ