শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়া সম্পন্ন হবে জানুয়ারিতেই

করোনা ভ্যাকসিন
শিক্ষার্থীদের টিকা  © সংগৃহীত

আগামী ৩১ জানুয়ারির মধ্যে বাংলাদেশের ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী সব শিক্ষার্থীদের অন্তত এক ডোজ টিকা দেয়া সম্পন্ন করা হবে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এর আগে এই লক্ষ্যমাত্রার সময়সীমা ১৫ই জানুয়ারি পর্যন্ত ছিল। পরবর্তীতে এই সময়সীমা দুই সপ্তাহ বাড়ানো হয়।

আজ শনিবার (১৫ জানুয়ারি) সকালে রাজধানীর ধানমন্ডি স্কলার্স স্কুল অ্যান্ড কলেজের টিকাদান কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে এ কথা বলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের লাইন ডিরেক্টর ডা. মো. শামসুল হক।

শামসুল হক আরও জানান, ইতিমধ্যেই শিক্ষার্থীদের দ্বিতীয় ডোজ টিকা প্রদান শুরু হয়ে গেছে। যেসব শিক্ষার্থীরা ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছে তারা ৩১ জানুয়ারির মধ্যে দ্বিতীয় ডোজ টিকা পাবে। কিন্তু যারা আজকে (১৫ জানুয়ারি) প্রথম ডোজ নিয়েছে তাদের ৩১ জানুয়ারির মধ্যে দ্বিতীয় ডোজ টিকা দেওয়া সম্ভব না। এ ক্ষেত্রে তাদের জন্য অতিরিক্ত সময় লাগবে। আমাদের পর্যাপ্ত টিকা রয়েছে তাই সময় মতো টিকা দেওয়া সম্ভব, এটা কোন কঠিন ব্যাপার নয়।

আরও পড়ুন- জাবির পরিসংখ্যান বিভাগের সশরীরে পরীক্ষা স্থগিত

টিকা কার্যক্রম ত্বরান্বিত করতে প্রথম দিকে শিক্ষার্থীদের টিকা পাওয়ার ক্ষেত্রে নিবন্ধনের বাধ্যবাধকতা থাকলেও পরের দিকে তা কিছুটা শিথিল কর হয়। বলা হয়, শিক্ষার্থীরা জন্মসনদ দেখাতে পারলেই টিকা পাবে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে বিশেষ বিমানে ফাইজারের ২৩ লাখ ডোজ টিকা ঢাকায় এসেছে। শুক্রবার(১৪ জানুয়ারি) রাতে এ টিকা এসে পৌঁছায়। ফাইজারের এই টিকা শুধুমাত্র শিক্ষার্থীদের দেওয়া হবে।

আরও পড়ুন- অনলাইনে ক্লাস শুরু বুয়েটে, খোলা থাকছে হল

করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রনের সংক্রমণ সামনের দিকে অনেক বাড়তে শুরু করবে এমন আশংকা থেকে ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে ঘোষণা দেয়া হয় যে, দেশজুড়ে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী সকল শিক্ষার্থীকে অন্তত এক ডোজ টিকা দেওয়ার কাজ সম্পন্ন করা হবে। সরকারি বিধিনিষেধে বলা হয়, এক ডোজ টিকা নেয়া না থাকলে শিক্ষার্থীরা সশরীরে ক্লাসে যেতে পারবে না বলেও জানানো হয়।


মন্তব্য

x