তৃতীয় লিঙ্গের প্রথম মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠার পেছনের কারিগর আজাদ

মোহাম্মদ আব্দুর রহমান আজাদ
মোহাম্মদ আব্দুর রহমান আজাদ  © টিডিসি ফটো

রাজধানী ঢাকায় হিজড়া জনগোষ্ঠীর জন্য একটি আলাদা মাদ্রাসার উদ্বোধন করা হয়েছে। মাদ্রাসাটির নাম রাখা হয়েছে ‘দাওয়াতুল কুরআন তৃতীয় লিঙ্গের মাদ্রাসা’। এর পেছনে যিনি কারিগর হিসাবে কাজ করেছেন তার নাম হচ্ছে মোহাম্মদ আব্দুর রহমান আজাদ। তিনি মাদ্রাসাটির মহাসচিব।

আজ শুক্রবার রাজধানীর কামরাঙ্গিরচরের লোহার ব্রিজ এলাকার আনুষ্ঠানিকভাবে এ মাদ্রাসার উদ্বোধন করা হয়। আব্দুর রহমান একইসেঙ্গ কামরাঙ্গীর চর বাইতুন নুর এসি মসজিদের খতীব হিসাবেও কর্মরত আছেন।

উদ্বোধনের বিষয়ে মাদ্রাসাটির শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ সচিব মোহাম্মদ আব্দুল আজিজ হুসাইনী বলেন, ঢাকার যাত্রাবাড়ী, বাড্ডা, কামরাঙ্গীর চর, সিলেটি বাজার- এমন কয়েকটা এলাকায় আমাদের ২০-২৫ জন করে শিক্ষার্থী আছে, যাদের আমরা আলাদা করে পড়াতাম। এই মাদ্রাসাটি উদ্বোধন হওয়ায় তাদের সবাইকে এখানে রেখে একসাথে পড়াতে পারবো।

তৃতীয় লিঙ্গের প্রথম মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠার পেছনের কারিগর মোহাম্মদ আব্দুর রহমান আজাদ মসজিদের প্রধান ইমাম ও একজন ইসলামিক স্কলার। বেস্ট সেলারসহ ২৭টি বই লিখেছেন তিনি। এই বছর তিনি প্রথম হিজড়াদের জন্য কুরআন শিক্ষা শুরু করেন।

তিনি দেশের প্রথম এবং সম্ভবত বিশ্বের হিজড়াদের জন্য প্রথম মাদ্রাসা চালু করেন। মূলধারার সমাজে একত্রিত করার প্রচেষ্টায় তিনি বলেছেন, আল্লাহ তাঁর সৃষ্টিকে ভালোবাসেন। অনেকদিন ধরে তারা দুর্বিপাক জীবন যাপন করছে। তারা স্কুল, মাদ্রাসা বা মসজিদে যেতে পারবে না। তারা বৈষম্যের শিকার হয়েছে।

মোহাম্মদ আব্দুর রহমান আজাদ বলেন, এর জন্য আমাদের সমাজ ও রাষ্ট্রকে দায়ি করতে হবে। আমরা এই বৈষম্য শেষ করতে চাই। আল্লাহ মানুষে মানুষে ভেদাভেদ পছন্দ করেন না। ইসলাম সবাইকে মানুষ হিসাবে বিবেচনা করে। হিজড়াদের উচিত অন্য যেকোনো মানুষের মত সকল অধিকার ভোগ করা।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ