পিস্তল ঠেকিয়ে কলেজছাত্রীকে তুলে নিল দুর্বৃত্তরা

ঢাকা
কলেজছাত্রীকে অপহরণ  © প্রতীকী ছবি

কুমিল্লায় দিনদুপুরে বাড়ির কক্ষে প্রবেশ করে মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে এক কলেজছাত্রীকে (১৭) তুলে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার (১০ মে) মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল হাশিম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে, সোমবার মুরাদনগর উপজেলার সদরে এ ঘটনা ঘটে। 
ওই কলেজছাত্রীর বাবা একজন প্রবাসী ও উপজেলার সদর এলাকার কাজী নোমান আহমেদ ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী তিনি। এ ঘটনায় ওই কলেজছাত্রীর মা বাদী হয়ে মুরাদনগর থানায় ৪ জনের নাম উল্লেখ করে একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেছেন। 

এ মামলার আসামিরা হলেন- উপজেলার সদর ইউনিয়নের করিমপুরের মৃত মতিউর রহমানের ছেলে হাবিবুর রহমান সানি (২১), মধ্যপাড়ার মো. তকদিওর ছেলে রাব্বি (২৮), উত্তরপাড়ার মো. কামরুল ও হাবিবুর রহমানের বড় ভাই আজিজুর রহমান রনি। 

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মতিউর রহমানের ছেলে হাবিবুর রহমান সানি দীর্ঘদিন যাবত ওই কলেজছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। তবে ভয়ে স্থানীয়রা মুখ খুলতে পারেনি। 

ওই কলেজছাত্রী ও স্থানীয়দের বরাতে পুলিশ জানিয়েছে, হাবিবুর রহমান সানির নেতৃত্বে একদল দুর্বৃত্ত দেশীয় অস্ত্র, রামদা, পিস্তলসহ কয়েকজন তরুণ প্রথমে ওই কলেজছাত্রীদের বাড়িটি ঘেরাও করেন। তবে আগ্নেয়াস্ত্র থাকায় ভয়ে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসেনি। এরপর তারা ওই কলেজছাত্রীর ঘরে ঢুকে তাকে তুলে নেওয়ার চেষ্টা করে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা বাধা দিতে যান। এ সময় ওই কলেজছাত্রীর মার মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন: অল্প বৃষ্টিতেই জলাবদ্ধতা, ভোগান্তিতে শিক্ষার্থীরা 

পুলিশ আরও জানিয়েছে, পরে মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে টানাহ্যাঁচড়া করে ওই কলেজছাত্রীকে একটি প্রাইভেটকারে তুলে নেওয়া হয়। পরে দ্রুতই ঘটনাস্থল ত্যাগ করে তারা। ওই কলেজছাত্রীর মা চিৎকার করলে ভয়ে কেউ এগিয়ে আসেনি। 

এ ঘটনায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে মুরাদনগর থানা পুলিশ। তবে কারা এবং কেন এমন ঘটনা ঘটেছে সেই বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কোন কিছু জানায়নি পুলিশ। 

ওই কলেজছাত্রীর মা জানান, ময়লা ফেলার জন্য বাসার গেট খুলি। এ সময় কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই মুখোশ পরা কয়েকজন ছেলে ঘরে ঢুকে যায়। তারা আমার মেয়েকে টানাহ্যাঁচড়া শুরু করে। আমি বাধা দিলে তারা আমার মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে মারধর করে মেয়েকে অস্ত্রের মুখে তুলে নিয়ে যায়।

মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল হাশিম জানান, বিষয়টি শুনেছি। এ ঘটনার রহস্য উদঘাটন ও ওই কলেজছাত্রীকে উদ্ধারে তৎপরতা চলছে।


x

সর্বশেষ সংবাদ