পরীক্ষা কেন্দ্রই এখন আশ্রয় কেন্দ্র

পরীক্ষা কেন্দ্রই এখন আশ্রয় কেন্দ্র
বন্যায় আশ্রয় কেন্দ্র  © টিডিসি ফটো

সিলেট অঞ্চল বর্তমানে স্মরণকালের সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যা অতিক্রম করছে। এই অঞ্চলে বন্যার এতো ভয়ংকর রূপ আগে কখনো দেখেনি মানুষ। ভয়াবহতার দিক দিয়ে অতীতের সকল রেকর্ড ভেঙে  দিয়েছে এবারের বন্যা। পানিবন্দী হয়েছেন লক্ষ লক্ষ মানুষ আর ঘরবাড়ি ছাড়া করে আশ্রয় কেন্দ্রে উঠেছেন আরও কয়েক লক্ষ মানুষ। এ বছরের বন্যায় মানুষের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ অতীতের তুলনায় সর্বাধিক, জনদুর্ভোগের তো কোনো শেষ নাই।

সিলেটের অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানই এখন পানির নিচে আবার অনেক প্রতিষ্ঠান বন্যায় আশ্রয় কেন্দ্র হিসেবে অসহায় মানুষের 'মাথা গোঁজার ঠাঁই' হয়ে দাড়িয়েছে।

এমনই এক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পূর্ব সিলেটের ঐতিহ্যবাহী  সরকারি এমসি একাডেমি স্কুল ও কলেজ। দীর্ঘদিন থেকে জেএসসি, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র হিসেবেই পরিচিত প্রতিষ্ঠানটি।

কিন্তু দেশের বন্যা পরিস্থিতি অবনতির দিকে যাওয়ায় আপাতত স্থগিত করা হয়েছে এসএসসি পরীক্ষা। এখন সেই পরীক্ষা কেন্দ্রই বন্যায় আশ্রয় কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। প্রতিটি ক্লাসরুমে শিক্ষার্থীদের বদলে এখন অসহায় মানুষের আনাগোনা। মানুষজন তাদের জীবনের কষ্টময় সময়টুকু পার করছেন এখানে।

আরও পড়ুন: মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা ডিসেম্বরে হচ্ছে না।

এ বিষয়ে প্রতিষ্ঠানের (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যক্ষ সুজিত কুমার তালুকদার দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাস বলেন, আমরা সরকারি নির্দেশনায় আমাদের প্রতিষ্ঠানের সকল ক্লাসরুম এখন বন্যার্ত মানুষের জন্য খুলে দিয়েছি এবং আমাদের প্রতিষ্ঠানের স্কাউট ও কর্মচারীরা তাদের পাশে আছে সবসময়। ইতোমধ্যে আমাদের শিক্ষক কর্মচারীদের উদ্যোগে একবেলার খাওয়ার তুলে দিয়েছি। এছাড়া তাদের যেকোনো প্রয়োজনে আমার প্রতিষ্ঠান তাদের পাশে থাকবে।


x

সর্বশেষ সংবাদ