বিভাগীয় শহরে ভর্তি পরীক্ষা নিতে ইউজিসির সুপারিশ, নাকচ করল জাবি

ঢাবি
জাবি   © সংগৃহীত

সম্প্রতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বেশ কিছু স্বায়ত্তশাসিত বিশ্ববিদ্যালয় বিভাগীয় শহরে ভর্তি পরীক্ষা নিচ্ছে। তবে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) এখনো নিজস্ব ক্যাম্পাসে পরীক্ষা নিচ্ছে। সোমবার জাবির সিনেট কক্ষে শিক্ষা পর্ষদের এক জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

বিভাগীয় শহরে কেন্দ্র করে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার জন্য জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের নিকটে সুপারিশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি)। তবে ইউজিসির এ সুপারিশ নাচক করে দিয়েছে জাবি কর্তৃপক্ষ।

জাবি প্রশাসন জানিয়েছে, ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথমবর্ষ ভর্তি পরীক্ষা পূর্বের মতোই জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত হবে। তবে জাবি প্রশাসন ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্রের সংখ্যা বাড়ানোর বিষয়ে চিন্তা করছে।

জানা গেছে, ৭ এপ্রিল দেশের সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা বিষয়ে উপাচার্যদের সঙ্গে ইউজিসির মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ১৯৭৩-এর অধ্যাদেশ অনুসারে প্রতিষ্ঠিত দেশের চারটি সরকারি (ঢাকা, রাজশাহী, চট্টগ্রাম ও জাহাঙ্গীরনগর) বিশ্ববিদ্যালয়কে একটি গুচ্ছ করার আহ্বান জানানো হয়।

সভায় আরও সিদ্ধান্ত হয়, গুচ্ছে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ না নিলে ওই চার বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫টির বেশি ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষা ও বিভাগভিত্তিক ভর্তি পরীক্ষার ফি নেওয়া যাবে না। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি), চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়কে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) আদলে ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণ ও ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের ভোগান্তি লাঘবে বিভাগীয় শহরে ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্র করার সুপারিশ করা হয়।

আরও পড়ুন : চুপিসারে ক্যাম্পাস ছাড়লেন জাবির সাবেক ভিসি ফারজানা

এদিকে ইউজিসির সুপারিশ অনুযায়ী জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) ১০ ইউনিটের পরিবর্তে ৫টি ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে শিক্ষা পর্ষদের জরুরি সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বকীয়তা ও স্বতন্ত্রতা বজায় রেখে পূর্বের মতোই ক্যাম্পাসে ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাবি প্রশাসন।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. নূরুল আলম জানান, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ১৯৭৩-এর অ্যাক্ট মেনে চলে। অ্যাক্ট মেনে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বকীয়তা ও স্বতন্ত্রতা বজায় রেখে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। একাডেমিক কাউন্সিলে মেজরিটি এ মতামত দিয়েছেন। তবে ক্যাম্পাসের যত জায়গায় সম্ভব ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণের ব্যবস্থা করব।


x

সর্বশেষ সংবাদ