ব্যাংকের অফিসার সেজে ঢাবি ছাত্রীকে বিয়ে, আসলে কফি ব্যবসায়ী

জয়নাল
জয়নাল  © সংগৃহীত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) এক ছাত্রীকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী ও সোনালী ব্যাংকের কর্মকর্তা পরিচয়ে বিয়ে করে অবশেষে ধরা পড়েছেন এক কফি ব্যবসায়ী। সে ওই ছাত্রীর সঙ্গে সংসার করতে বিয়ে করেছেন বলে জানান।

বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সলিমুল্লাহ মুসলিম হলে ভুক্তভোগী ছাত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে বিশ্ববিদ্যালয় নিরাপত্তা মঞ্চ তাকে আটক করে। পরে প্রক্টরের হাতে তাকে তুলে দেয়া হয়। প্রক্টর থেকে জানানো হয়েছে, তাকে শাহবাগ থানা পুলিশের হাতে তুলে দেয়া হবে।

আরও পড়ুন: ঢাবি ছাত্রী হতে পেরে সত্যিই খুবই গর্বিত: প্রধানমন্ত্রী

অভিযুক্ত প্রতারকের নাম জয়নাল। তার বাড়ি চাঁদপুর জেলার সদর উপজেলার মালিয়া গ্রামে। সে মূলত পেশায় একজন কফি ব্যবসায়ী।

ভুক্তভোগী ছাত্রীর দাবি, প্রতারক আমাকে বলেছিলো সে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র এবং সূর্যসেন হলে ছিলেন। এখন সে সোনালী ব্যাংকের সিনিয়র কর্মকর্তা। এসব বলে আমাকে মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে বিয়ে করে।

আরও পড়ুন: ফেসবুকে পরিচয়-প্রেম, বিয়ের ৬ মাস না যেতেই লাশ হলেন ঢাবি ছাত্রী

‘‘কিন্তু বিয়ের পর আমি বুঝতে পারি সে আমার সাথে প্রতারণা করেছে। সে আমাকে বিভিন্ন সময় নির্যাতনও করতো।’’

অভিযুক্ত প্রতারকের সাথে কথা বললে সে জানায়, সে না বুঝে এটা করেছে। ওই ছাত্রীর সঙ্গে তার সংসার করার ইচ্ছে ছিলো।

অভিযুক্ত নিজেকে কখনো সোনালী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার, কখনো সোনালী ব্যাংকের ক্যাশ ইন চার্জ, কখনো বলে সে ৪১তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় পাস করেছে। আসলে সে এসএসসি পাস করেছে। শুধু এই ছাত্রীই নয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগ, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগ, ইডেন কলেজের একাধিক মেয়ের সাথে একইভাবে প্রতারণা করেছে বলে জানা যাচ্ছে।

আরও পড়ুন: কললিস্টের সূত্র ধরে চলছে ঢাবি ছাত্রী তুষ্টির মৃত্যুর তদন্ত

নিরাপত্তা মঞ্চের প্রতিষ্ঠাতা ও সলিমুল্লাহ মুসলিম হলের সাবেক সাধারন সম্পাদক জুলিয়াস সিজার তালুকদার বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর সাথে সে নানা প্রকার মিথ্যা বলে তাকে বিয়ে করে। এক সময় মেয়েটি তার প্রতারণা সম্পর্কে জানতে পেরে আমাদের জানালে আমরা খোঁজ নিয়ে জানতে পারি তার দেয়া সব তথ্যই মিথ্যা।


মন্তব্য

x