গরমে ত্বকের যত্নে প্রাকৃতিক উপাদান

টিপস ও টিউটোরিয়াল
ত্বকের যত্নে প্রাকৃতিক উপাদান  © প্রতীকী ছবি

দেশে চলছে বর্ষা মৌসুম। এর মাঝেই আচমকা কখনো সখনো সূয্যি মামা খুব রেগে উঠেন। তখন প্রচণ্ড গরমে ঘেঁমে ত্বকের নাজেহাল অবস্থা তৈরী হয়। বাহিরে সূর্যের তাপ, ভিতরে ঘর্মাক্ত দেহের বিচ্ছিরি গন্ধ। ভ্যাপসা গরমে প্রায় এভাবেই কাঁটে দিন। ফলে ত্বকে সান ট্যান, রোদে পোড়া দাগ, ফুসকুড়ি, ঘাঁমাচি ও বিভিন্ন প্রদাহ দেখা দেয়। প্রতিকূল এ আবহাওয়া কিংবা বিভিন্ন প্রদাহের কারণে অনেক সময় এভাবেই ত্বকের মসৃণতা হারিয়ে যায়।

তবে বেশ কিছু ঘরোয়া প্রতিকার রয়েছে, যেগুলো ত্বককে এ সমস্যা থেকে বাঁচাতে সাহায্য করবে। তাছাড়া সবাই চায় তার ত্বক মসৃণ ও সুন্দর থাকুক। এমনকি ত্বকের জেল্লা ধরে রাখতে প্রতিনিয়ত অনেকে করে হাজারো প্রচেষ্টা। কিন্তু একটু সচেতন হয়ে যত্ন নিলেই প্রাকৃতিকভাবে ত্বকের মসৃণতা ধরে রাখা সম্ভব। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক গরমে ত্বকের যত্নে কী কী প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করা যায় : 

ত্বকের যত্নে দুধ

গরমে ত্বকের উজ্জ্বলতা প্রায়ই নষ্ট হয়ে যায়। দীর্ঘক্ষণ সূর্যের তাপে মুখে কালো দাগ-ছোপ পড়ে। কিন্তু এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেতে দুধ বেশ কার্যকরী। কারন  দুধ ত্বককের পিএইচ মাত্রা ঠিক রাখার পাশাপাশি নরম ও সূর্যের নেতিবাচক প্রভাবমুক্ত করতে সহায়তা করে। তাই দুধের সাথে গ্লিসারিন মেশানো পেস্ট ১৫ মিনিট মুখে লাগিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। তাহলেই ত্বকের উজ্জ্বলতা ফিরে আসবে।

আরও পড়ুন: গরমে ত্বকের যত্নে ঘরোয়া টেকনিক

নিমপাতা

ত্বকের প্রদাহ নিরাময় ও উজ্জলতা বাড়াতে নিমপাতা বেশ উপকারী। কেননা নিমের মধ্যে রয়েছে জৈব সালফার যৌগ এবং বহুমুখী নিরাময় ক্রিয়া, যা ত্বকের জন্য বিশেষ উপকারী। তাই একমুঠো নিমপাতার পেস্ট ৩০মিনিট মুখে লাগিয়ে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।

অ্যালোভেরা

ত্বকের পোড়া ও প্রদাহ কমাতে অ্যালোভেরা খুবই উপকারী। কারণ অ্যালোভেরায় জিঙ্ক থাকে, যা প্রদাহ বিরোধী। তাজা অ্যালোভেরা জেল ত্বকে লাগালে প্রদাহ প্রশমিত হয় এবং রোদে পোড়া দাগ সারাতে সাহায্য করে। তাই ত্বকের যত্নে অ্যালোভেরা ব্যবহার করলে খুব কাজে দেয়।   

তরমুজ

তরমুজের রস ত্বকের যত্নে বেশ ভাল। এটি গরমের শুষ্কতা থেকে ত্বককে মুক্তি দেয়। এমনকি ত্বককে শীতল রাখার পাশাপাশি সতেজ ও নরম করে।

পেঁপের মাস্ক

পেঁপের সজ্জা মুখোশের মতো ত্বকে প্রয়োগ করা যেতে পারে। তারপর ২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এতে ত্বকের মৃত কোষ দূর হবে। কারণ পেঁপেতে থাকা এনজাইম ত্বকের মৃত কোষ দূর করতে সহায়তা করে।
দাগ-ছোপ দূর করতে অল্প দই বা লেবুর রস যোগ করুন।

আরও পড়ুন: গরমে ডায়রিয়া থেকে বাঁঁচার উপায়

মিশ্র ফলের মুখোশ

কলা, আপেল, পেঁপে ও কমলালেবুর মতো ফল একসঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগাতে পারেন।  এটি ২০ থেকে ৩০ মিনিট পর্যন্ত লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলুন। কারণ পেঁপে ত্বকের মৃত কোষ পরিষ্কার করতে সাহায্য করে। কলা ত্বককে টানটান করে। আপেলে থাকা পেকটিন ত্বককে টোন করে। কমলা ভিটামিন সি সমৃদ্ধ। এটি ত্বকের স্বাভাবিক অ্যাসিড ও ক্ষারীয় ভারসাম্য রক্ষা করে।

ফুলারের আর্থ মাস্ক

ত্বকের তৈলাক্ততা কমাতে গোলাপ জলের সাথে এক টেবিল চামচ ফুলারস আর্থ (মুলতানি মাটি) মিশিয়ে নিন। পেস্টটি মুখে লাগান এবং শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। এ পেস্ট ত্বকের ছিদ্র সঙ্কুচিত করার পাশাপাশি ত্বক পরিষ্কার রাখে। তাছাড়া ত্বকের তৈলাক্ত ভাব দূর করতে শসার পেস্ট বেশ কার্যকরী। 

ত্বকের পুষ্টি 

এই কঠোর আবহাওয়ায় ত্বকের পুষ্টি জোগাতে দুই চা চামচ লবণ, দেড় চা চামচ বাদাম তেল এবং আধা চা চামচ মাল্ট ভিনেগার মিশিয়ে নিন। গোসলের আগে এটি শরীরে লাগান। তারপর ধুয়ে ফেলুন। এতে ত্বকে পুষ্টির ভারসাম্য রক্ষা হবে।

বি.দ্র. : নিবন্ধটি দ্য টাইমস অফ ইন্ডিয়ায় প্রকাশিত সৌন্দর্য বিশেষজ্ঞ ব্লসম কোচারের পরামর্শ সম্বলিত প্রতিবেদন অবলম্বনে প্রস্তুত করা হয়েছে।


x