পোস্টগ্রাজুয়েশন ডিগ্রি ছাড়া বিশেষজ্ঞ পদবি ব্যবহার প্রতারণার শামিল

পোস্টগ্রাজুয়েশন ডিগ্রি ছাড়া বিশেষজ্ঞ পদবি ব্যবহার প্রতারণার শামিল
বাংলাদেশ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিল  © লোগো

বাংলাদেশ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিল (বিএমডিসি) কর্তৃক স্বীকৃত নয় এমন কোনো পদবি ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে চিকিৎসকদের। সম্প্রতি বিএমডিসির ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার ডা. মো: আরমান হোসাইন স্বাক্ষরিত এক সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তিতে এমন সতর্কতা জারি করা হয়।

এতে বলা হয়েছে, পোস্টগ্রাজুয়েশন ডিগ্রি না নিয়ে বিশেষজ্ঞ পদবি ব্যবহার করা জনসাধারণের সঙ্গে প্রতারণার শামিল। একই সঙ্গে এটি বিএমডিসি আইনের পরিপন্থী ও শাস্তিযোগ্য অপরাধ। এইজন্য ব্যক্তি অর্থদণ্ড অথবা কারাদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডনীয় হতে পারেন।

এ বিষয়ে বিএমডিসি কর্তৃক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সকল নিবন্ধিত (বিএমএডডিসি হইতে রেজিস্ট্রেশনপ্রাপ্ত) চিকিৎসক/দন্তচিকিৎসক এবং সর্বসাধারণের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, বাংলাদেশ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিল কর্তৃক স্বীকৃত নয় এমন কোনো নাম, পদবি, শিক্ষাগত যোগ্যতা, বিবরণ ইত্যাদি বিএমডিসি হতে নিবন্ধন প্রাপ্ত কোনো চিকিৎসক/দন্তচিকিৎসক ব্যবহার করিতে পারবেন না। কেননা এই সমস্ত স্বীকৃতিবিহীন ডিগ্রি বা পদবি ব্যবহারে কারো অতিরিক্ত পেশাগত শিক্ষাযোগ্যতা আছে বলে জনসাধারণ মনে করতে পারেন এবং প্রতারিত হতে পারেন।

আরো উল্লেখ করা হয়, কোনো কোনো নিবন্ধিত চিকিৎসক/দন্তচিকিৎসক তাদের সাইনবোর্ড প্রেসক্রিপশান প্যাড, ভিজিটিং কার্ড ইত্যাদিতে PGT; BHS; FCPS (Part - I), (Part - II); MD (in course), (Part-1), (Part- II) (থিসিস পর্ব), (Last Part), Course Completed (cc); MS (in course), ( Part-I), ( Part- II), (থিসিস পর্ব), (Last Part), Course Completed (cc) ইত্যাদি এবং দেশ বিদেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান হতে প্রদত্ত ফেলোশিপ এবং ট্রেনিংসমূহ যথা'- FRCP, FRHS, FICA, FICS, FAMS ও FIAGP ইত্যাদি উল্লেখ করছেন। যেগুলো কোনো স্বীকৃত চিকিৎসা শিক্ষা যোগ্যতা নয় এবং বিএমডিসি কর্তৃক স্বীকৃত নয়।

এ ছাড়াও স্বীকৃত পোস্টগ্রাজুয়েশান ডিগ্রি না থাকা সত্ত্বেও কেউ কেউ মেডিসিন বিশেষজ্ঞ, সার্জারি বিশেষজ্ঞ, শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ, চর্ম ও যৌন রোগ বিশেষজ্ঞ, চক্ষু বিশেষজ্ঞ, নাক-কান-গলা বিশেষজ্ঞ, গাইনি ও প্রসূতি বিশেষজ্ঞ ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয়ের বিশেষজ্ঞ হিসেবে তাহাদের পরিচিতি প্রদান করে তা প্রেসক্রিপশান প্যাড, সাইন বোর্ড ও ভিজিটিং কার্ড ইত্যাদিতে ব্যবহার করছেন। যা জনসাধারণের সঙ্গে প্রতারণামূলক কাজ হিসেবে গণ্য। এটি স্পষ্টত বাংলাদেশ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিল আইনের পরিপন্থী এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ। এজন্য ব্যবহারকারী অর্থদণ্ড বা কারাদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডনীয় হতে পারেন।
এমতাবস্থায় বিএমডিসি হতে প্রাপ্ত রেজিস্ট্রেশন বাতিলসহ আইনে উল্লেখিত অন্যান্য শাস্তি হতে পারে।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ