অভিভাবক নেতারা আমার কাছে অনৈতিক সুবিধা চেয়েছেন: অধ্যক্ষ

ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ কামরুন নাহার
ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ কামরুন নাহার  © ফাইল ছবি

ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ কামরুন নাহার জানিয়েছেন, অভিভাবক নেতারা আমার কাছ থেকে বিভিন্নরকম অনৈতিক সুবিধা চেয়েছেন। তারা টাকা চেয়েছে। আমি দেইনি। এজন্য তারা ফেসবুকে নানা কথা লিখেছেন। তারা আমার চেয়ারে লাথি দিয়েছে।

একজন অভিভাবকের সঙ্গে অধ্যক্ষ কামরুন নাহারের ফোনালাপ ফেসবুকে ফাঁস হওয়ার পর সোমবার (২৬ জুলাই) তিনি গণমাধ্যমের কাছে এসব অভিযেগা করেন।

অধ্যক্ষ বলেন, অভিভাবক ফোরাম নামে একটি সংগঠন আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার করছে। তারা বিভিন্ন অজুহাতে ক্যাম্পাসে ব্যবসা করার ফন্দি করছেন। তাদের ব্যবসার অনুমতি না দেয়ায় তারা নানা অপপ্রচার করছে।

ভাইরাল ফোনালাপ সম্পর্কে তিনি বলেন, সুপার এডিট করে ফেসবুকে ফোনালাপের একাংশ প্রকাশ করা হয়েছে। অভিভাবক মীর সাহাবুদ্দিন টিপু শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য আবেদন জানিয়েছিল। আমি ভর্তি করাইনি। করোনার মধ্যে প্রায় ৪০ জন অভিভাবক নিয়ে এসে তাদের বিভিন্ন দাবি তুলে ধরতে চেয়েছিলেন। আমি করোনা পরিস্থিতি স্থিতিশীল হলে অফিসে দেখা করতে বলেছিলাম। আমাকে অভিভাবক টিপু আল্টিমেটাম দিয়ে চলে যান।

তিনি বলেন, প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন প্রকল্পে দুর্নীতি হয়েছে কিনা তা যাচাইয়ে শিক্ষা প্রকৌশলকে লিখিত দিয়েছিলাম। সেটির তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এছাড়া ঢাকা শিক্ষা বোর্ড ভর্তি বাণিজ্য, উন্নয়ন প্রকল্পে দুর্নীতি ও শিক্ষকদের সঙ্গে অশালীন আচরণের কারণে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। এসব কারণে আমারে সরিয়ে দিতে তারা পরিকল্পনা করেই এমন ঘটনা ঘটিয়েছে।

ভাইরাল ৪ মিনিট ৩৯ সেকেন্ডের ওই ফোনালাপে অভিভাবক টিপু ঠান্ডা মাথায় কথা বললেও অধ্যক্ষ ছিলেন উত্তেজিত। তবে কেন কী কারণে অধ্যক্ষ উত্তেজিত তা ফোনালাপে স্পষ্ট নয়।

অধ্যক্ষ কামরুন নাহার বলেন, আমি ওদের সাথে কোন কথা বলি না। ওদের ফোন দেখলেও আমি এড়িয়ে যাই। গত ১৬ জুলাই রাতে আমার বাসায় হামলা করেছে অভিভাবক ফোরাম।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ