লটারির মাধ্যমে স্কুল ভর্তিতে স্বচ্ছতা নিশ্চিতের দাবি অভিভাবকদের

লটারির মাধ্যমে স্কুল ভর্তিতে স্বচ্ছতা নিশ্চিতের দাবি অভিভাবকদের
  © প্রতীকী ছবি

২০২১ শিক্ষাবর্ষে করোনাকালে সরকারি-বেসরকারি স্কুলের প্রতিটি শ্রেণিতে লটারির মাধ্যমে শিক্ষার্থী ভর্তি করানোর সরকারি সিদ্ধান্তকে অভিনন্দন জানিয়েছে অভিভাবক ঐক্য ফোরাম। আজ বুধবার (২৫ নভেম্বর) এক বিবৃতিতে সংগঠনটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিয়াউল কবির দুলু লটারির মাধ্যমে স্কুল ভর্তিতে স্বচ্ছতা নিশ্চিতের দাবিও জানান।

বিবৃতিতে বলা হয়, এ বছর সব শ্রেণিতে অটোপাস দেয়ায় ২য় শ্রেণি থেকে ৮ম শ্রেণিতে আসন খালি থাকবে কম। আসন খালি না থাকলে শিক্ষার্থী ভর্তি করানো যাবে না বা শিক্ষার্থী ভর্তির বিজ্ঞপ্তি দেয়া যাবে না। সে জন্য ২০২১ শিক্ষাবর্ষে ১ম শ্রেণি ছাড়া অন্যান্য শ্রেণিতে লটারিতে কম শিক্ষার্থী অংশ নিবে এবং অভিভাবকদের উপস্থিতি কম হবে।

মোঃ জিয়াউল কবির দুলু বলেন, ভাল মানের স্কুল কম থাকায় রাজধানী ঢাকায় হাতে গোনা মাত্র কয়েকটি স্কুলে খালি আসনের চেয়ে শিক্ষার্থী ভর্তির আকাঙ্খায় প্রচন্ড চাপ থাকে। সে জন্য প্রতিযোগীও বেশি হয়। তাই সরকারের ভাব মুর্তি আরও উজ্জ্বল ও ভর্তির লটারির স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতেই রাজধানীর নামকরা মাত্র কয়েকটি স্কুলের জন্য বিশেষ ব্যবস্থায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সৎ ও দক্ষ কর্মকর্তাদের নিয়ে একটি কমিটি গঠন করে তাদের উপস্থিতিতে লটারি কার্যক্রম পরিচালনার দাবি জানান এবং লটারি কার্যক্রমে ভর্তি ইচ্ছুক শিক্ষার্থীর অভিভাবকদেরকে অবশ্যই স্বাস্থ্য বিধি মেনে লটারি কার্যক্রমে উপস্থিত থাকার বিষয়টি থাকতে হবে। অন্যথায় লটারির স্বচ্ছতা ও গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠবে বা বির্তক সৃষ্টি হবে। প্রয়োজনে ধাপে ধাপে বা গ্রুপ গ্রুপভাবে লটারি অনুষ্ঠিত করতে হবে।

বিবৃতিতেরাজধানীর স্কুলগুলোর ক্যাচমেন্ট এরিয়া সংশ্লিষ্ট থানাব্যাপী (সংশ্লিষ্ট থানার মধ্যে অবস্থিত স্কুলগুলোই আশ-পাশ এলাকা হিসেবে গণ্য হবে)। সুনির্দিষ্ট সীমানা নির্ধারন করে দেয়ার দাবিও জানানো হয়।


মন্তব্য