নাটকে বুয়েট শিক্ষিকার সঙ্গে প্রেম, বাস্তবে বিয়ে করলেন ঢাবি শিক্ষিকাকে

নাটকে বুয়েট শিক্ষিকার সঙ্গে প্রেম, বাস্তবে বিয়ে করলেন ঢাবি শিক্ষিকাকে
অভিনেতা মামুনুল বিয়ে করেছেন  © সংগৃহীত

‘চড়ুইভাতি’ নাটকের মধ্য দিয়ে ব্যাপক আলোচনায় আসা অভিনেতা মামুনুল বিয়ে করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) হাবিবা রহমান নামে এক শিক্ষিকাকে। বিশ্ববিদ্যালয়ের টেলিভিশন, ফিল্ম অ্যান্ড ফটোগ্রাফি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক তিনি। 

তবে চড়ুইভাতি নাটকে বুয়েটের (বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়) এক শিক্ষিকার প্রেমে পড়েছিলেন মামনুল। এমনকি ঢাকার অদূরে শিক্ষিকার সঙ্গে গোপনে ডেটেও গিয়েছিলেন। বাস্তব জীবনেও শিক্ষিকাকেই বিয়ে করলেন এই অভিনেতা।

চড়ুইভাতির পর কিছু নাটক করলেও সেভাবে আলোচনায় ছিলেন না। তবে মামুনুলের অভিনয় দাগ কাটে অনেকের বুকে, যার ফলে এই সময়েও মামুনুলকে খোঁজা হতো সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে। এবার সেই মামুনুল এলেন বিয়ের খবরে।

ঘরোয়া পরিবেশে গত শুক্রবার (৫ নভেম্বর) বিয়ের পিঁড়িতে বসেন এই অভিনেতা। দু'জনের মধ্যে পরিচয় ২০১৬ সালে, বন্ধুদের মাধ্যমে। উভয়েরই এটা দ্বিতীয় বিয়ে।

মামুনুল বলেন, দু’জনের কমন সার্কেলের মাধ্যমে পরিচয়। দু’জনকে বোঝার জন্য সময় নিয়েছিলাম। এর মধ্যে আমাদের ভালো লাগা, কিছুটা মান-অভিমানও হয়েছে। পরে বুঝতে পারলাম হাবিবার মধ্যে শ্রদ্ধা করার মতো অনেক কিছু আছে।

হাবিবা বলেন, মামুনুল খুব সংবেদনশীল একজন মানুষ, খুব শৌখিন, তার আরও কিছু বিষয় ইউনিক মনে হওয়ায় বিয়ের সিদ্ধান্ত নেই। সবার কাছে দোয়া চাই, আমরা যেন সুখী হতে পারি।

মামুনুল হকের প্রথম নাটক আনিসুল হক রচিত ও মোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত ‘চড়ুইভাতি’ (২০০২)। নতুন ধারার সাহসী এই নাটকের মাধ্যমে জনপ্রিয়তা পান মামুনুল। ২০০৭ সাল পর্যন্ত ১২টির মতো নাটকে অভিনয় করেন তিনি। সম্প্রতি ‘পাতাল ঘর’ নামে একটি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। ইউনিসেফে চাকরি করেন মামুনুল।


মন্তব্য

x