রমজান মাসে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার দাবি

রমজান মাসে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার দাবি
  © সংগৃহীত

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন অক্ষুণ্ণ রাখার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগ। মঙ্গলবার (৯ মার্চ) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধন ও সমাবেশ থেকে এ দাবি জানান তারা। এসময় আসন্ন রমজান মাসে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার দাবিও করেছেন।

পবিত্র রমজান মাসে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার দাবি জানিয়ে বলা হয়, দীর্ঘ এক বছর বন্ধ রেখে পবিত্র রমজান মাসে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্তকে এদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমান ইসলামবিরোধী সিদ্ধান্ত হিসাবে দেখছে।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, রোজায় সব নিয়মই লঘু করে দেওয়া হয়। অফিস আদালতের সময় কমিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা থাকায় অনেকেই রোজা রাখতে নিরুৎসাহিত হবে এবং যারা রোজা রাখবে তাদের বেশি কষ্ট হবে। অথচ হাদিসে রোজার সময় শ্রম কমিয়ে দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

ইসলাম বিদ্বেষী ও ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতকারী লেখা বন্ধের জন্য ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন অক্ষুণ্ণ রাখতে হবে মন্তব্য করে বক্তারা বলেন, যারা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের পরিবর্তন চায় তারা ইসলাম, মুসলমান ও দেশবান্ধব নয়। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের প্রেক্ষাপট ছিল নাস্তিক ব্লগারদের মুক্তমনা, বিজ্ঞানমনস্ক লেখক নামে ইসলামবিদ্বেষী লেখা এবং ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতকারী লেখা বন্ধ করা। তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া। কিন্তু এখন আবার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন তুলে দিলে নাস্তিক ব্লগাররা মাথাচাড়া দিয়ে উঠবে। যা এদেশের ৯৮ ভাগ জনগোষ্ঠী ধর্মপ্রাণ মুসলমান বরদাশত করবে না।

মানববন্ধনে সংগঠনটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাওলানা মুহম্মদ আখতার হুসাইন বুখারী সভাপতিত্ব করেন। বক্তব্য দেন সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্জ কাজী মাওলানা মুহম্মদ আবুল হাসান শেখ শরীয়তপুরী, সম্মিলিত ইসলামী গবেষণা পরিষদের সভাপতি আলহাজ্জ হাফেজ মাওলানা মুহম্মদ আব্দুস সাত্তার ও মাওলানা মুহম্মদ শওকত আলী শেখ ছিলিমপুরীসহ প্রমুখ।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ