আসিফ নজরুলের পিএইচডির গল্প

বই
বইয়ের প্রচ্ছদ ও লেখক  © সংগৃহীত

ড. আসিফ নজরুল। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক। নানান অঙ্গনের সচেতন মানুষদের কাছে একটি আগ্রহের নাম। লেখক আসিফ নজরুল নামের পূর্বে ড. বসানোর প্রেক্ষাপট নিয়ে “পিএইচডির গল্প” লিখে থাকলেও পুরান ঢাকার একজন নজরুল ইসলাম কিভাবে আসিফ নজরুল হয়ে উঠলো সে গল্পও উঠে এসেছে এই গ্রন্থে ।

বইটিতে আশির দশকের একজন কিশোর তুলে ধরেছেন তার এসএসসি রেজাল্ট পেতে সেসময় কিভাবে নাটকীয় ঘটনায় পরতে হয়েছিল। আজকের তথ্যপ্রযুক্তির যুগে লেখকের সাথে ঘটে যাওয়া ঐসব ঘটনা অনেকটা নাটক সিনেমার মতো মনে হবে আমাদের প্রজন্মের কাছে।

আরও পড়ুন: ‘জিয়াউর রহমান: ইতিহাসের ধ্রুবতারা’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন ও প্রকাশনা কাল

নাটকীয় ঘটনায় আসিফ নজরুল নিজের রেজাল্টটি হাতে পাওয়ার পর কয়েকদিন পরেই আবারও অকল্পনীয় ভাবে নিজেকে তিনি পত্রিকায় আবিষ্কার করেন। বইটিতে নিজেকে দরিদ্র পরিবারের সদস্য হিসেবে পরিচয় দেওয়া আসিফ নজরুলের ছোট বোন লিলির জীবনের গল্প অনেকের মনকে নাড়া দিতে পারে শুরুর দিকেই।

ঢাকা কলেজের এইচএসসির ছাত্র হিসেবে তুলে ধরেছেন কলেজ জীবনের নানান স্মৃতি, পরিচিতি করে দিয়েছেন শিক্ষাগুরু ও সহপাঠীদের অনেককে। যাদের অনেকে আজ সফল ব্যাক্তিত্ব। ছাত্রজীবনেই লিখে খ্যাতি পাওয়া আসিফ নজরুল পড়াশোনা শেষ করে পিতার একটি কথার কারণে যোগ দিয়েছিলেন ম্যাজিট্রেস্ট হিসেবে। কিন্তু লেখক যে তখনও সাংবাদিকতার নেশায় বুঁদ হয়ে রয়েছে।

আরও পড়ুন: ভ্রমণ পিপাসুদের জন্য ঢাবি শিক্ষকের বই ‘ইরানের পথে প্রান্তরে’

তাই সরকারি চাকরি ছেড়ে দিয়ে ঢাকার বাইরের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতার চাকরি নিলেন। যাতে লেখালেখিটাও চালাতে পারেন সমান তালে। সেই চাকরির কয়েকদিনের মাথায় ঘটনাচক্রে চাকরি পেলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে।

একজন তরুণ শিক্ষক তার শিক্ষকতা জীবনের চিত্র তুলে এনেছেন এই বইয়ে। এরপর পাঠকদের সাথে শেয়ার করেছেন তার পিএইচডি করতে যাওয়ার যাত্রার গল্প । সাথে উল্লেখ করেছেন তার বড় ভাইয়ের পিএইচডির গল্প। যে গল্প অনেককে যেমনি হাঁসাবে ঠিক তেমনি পিতামাতার কথা ভেবে মর্মাহতও করবে।

আরও পড়ুন: বই মানুষকে শুদ্ধ করে: মোমিন মেহেদী

আমাদের দেশে পিএইচডি ডিগ্রি নিয়ে সাম্প্রতিক সময়ে নানান চিত্র উঠে এসেছে গনমাধ্যমে। আসলেই এই পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করা যে কতটা সময় সাপেক্ষ ও কঠোর পরিশ্রমের বিষয় তা এই বইটি পড়লে যে কোনো ব্যাক্তি অনুধাবন করতে পারবে। লেখক তার পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করতে গিয়ে যুক্তরাজ্যে অবস্থানরত সময়ের নানান সংগ্রামের কথা তুলে ধরেছেন। বলেছেন এক ছাত্রীর সাথে ওনার ঘটে যাওয়া প্রেম ও বিবাহের গল্প। তেমনি জানিয়েছেন আমাদের যুক্তরাজ্যের সংস্কৃতি ও সে দেশের ছোট ছোট নানান বিষয় এবং সেদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশীদের নানান ভিতরের কথা।

যারা উচ্চ শিক্ষার জন্য বিদেশে যেতে ইচ্ছুক তাদের জন্য আসিফ নজরুলের এ বই খানিকটা দিকনির্দেশনামূলক হতে পারে । আর যারা আসিফ নজরুলকে জানতে চান তারা এবইয়ের প্রতিটা লাইনেরর মাধ্যমে নতুন করে চিনতে পারবেন ।

বইয়ের নাম : পিএইচডির গল্প
লেখক : আসিফ নজরুল 
প্রকাশনী : বাতিঘর 

লেখক: চীন প্রবাসী শিক্ষার্থী


x