চবিতে হলের অফিসে তালা ঝুলিয়ে আন্দোলন ছাত্রীদের

চবি
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়  © টিডিসি ফটো

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) শেখ হাসিনা হলের অফিস কক্ষে তালা ঝুলিয়ে আন্দোলন করছে ছাত্রীরা। এসময় তারা হলের সুবিধা সংক্রান্ত বিভিন্ন দাবি জানায়। 

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে অফিস কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দেয় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। তবে প্রশাসনের দাবি মানার আশ্বাসে এক ঘণ্টা পর তালা খুলে দেয় তারা।

ছাত্রীদের দাবিগুলো হলো, শেখ হাসিনা হলের নির্মিত বর্ধিত অংশ খুলে দেয়া, হলে কর্মচারী বাড়ানো, লাইব্রেরি রুম থেকে গণরুম তুলে দিয়ে লাইব্রেরি রুম আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনা এবং হলের কর্মচারীদের ড্রেস কোড নির্ধারণ করে দেওয়া। 

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের পক্ষে হলের আবাসিক ছাত্রী আফরিন লিমু বলেন, ‘ আমরা বলেছি আমাদের হলের এক্সটেনশনটা খুলে দিতে। এছাড়াও হলে পর্যাপ্ত কর্মচারী নেই, তাই হল পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকছে না। লাইব্রেরিকে গণরুম বানানো হয়েছে। এখন আমাদের দাবি লাইব্রেরি রুম থেকে গণরুম তুলে দিয়ে, সেখানে যারা আছে তাদের এক্সটেনশনে নিয়ে যাওয়া, এগুলো আমাদের মূল দাবি।’

তিনি আরও বলেন, ‘ওয়াশরুম দুইদিন পর পর পরিষ্কার, ক্যান্টিনের খাবার সমস্যা সমাধান ও রাতের ডাইনিং চালু করা, পানি সমস্যা সমাধান ও ফিল্টার স্থাপন স্টার্ফের ড্রেসকোডের ব্যবস্থা করার দাবি জানিয়েছি আমরা। স্যাররা আমাদের দাবি মানার জন্য এক সপ্তাহ সময় চেয়েছেন, তাই আমরা তালা খুলে দিয়েছি।’

শেখ হাসিনা হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. এ.কে. এম রেজাউর রহমান বলেন, ‘হলের ছাত্রীরা আমাদের সন্তানের মতো। তাদের যৌক্তিক এই দাবিগুলো আমরা জেনেছি। আশা করছি কয়েকদিনের মধ্যে মেয়েদের সব দাবি বাস্তবায়ন করা হবে।’

 


x