ঢাবিতে ছাত্র ফেডারেশনের হারিকেন মিছিল

লোডশেডিংয়ে জনভোগান্তির প্রতিবাদে ঢাবিতে হারিকেন মিছিল
লোডশেডিংয়ে জনভোগান্তির প্রতিবাদে ঢাবিতে হারিকেন মিছিল  © টিডিসি ফটো

লোডশেডিংয়ে জনভোগান্তি বেড়েছে অভিযোগ করে বিক্ষোভ সমাবেশ ও হারিকেন মিছিল করেছে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন। সমাবেশে সংগঠনটি জ্বালানি খাতে সরকারের পরিকল্পিত লুটপাটের অভিযোগ করে এ বিষয়ে জনগণকে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে।

সোমবার (২৫ জুলাই) সন্ধ্যা ছয়টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) রাজু ভাস্কর্যে বিক্ষোভ সমাবেশ করে। পরবর্তীতে সমাবেশ শেষে নীলক্ষেত অভিমুখে হারিকেন মিছিল করে হাতিরপুলের দলীয় কার্যালয়ে শেষ করে।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে দেশের জনগণ ব্যাপক লোডশেডিংয়ের সম্মুখীন হচ্ছে। দেশে বিদ্যুতের ঘাটতি কমাতে ১৯ জুলাই থেকে চলছে এলাকাভিত্তিক শিডিউল করে লোডশেডিং। কিন্তু গ্রাম পর্যায়ে প্রতিদিন এক থেকে দুই ঘণ্টা লোডশেডিংয়ের শিডিউল থাকলেও সারাদিনে গ্রাহকেরা ৯-১০ ঘণ্টা পর্যন্ত বিদ্যুৎ পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ করেন আন্দোলনকারীরা। 

বিক্ষোভ সমাবেশের সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি মশিউর রহমান। সমাবেশে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন নাগরিক ঐক্যের সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম, বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতি বিন ইয়ামিন মোল্লা ও গণসংহতি আন্দোলনের নির্বাহী সমন্বয়কারী আবুল হাসান রুবেল।

আরও পড়ুন: বিশ্ববিদ্যালয়ে বিদ্যুৎ ব্যবহারে মিতব্যয়ী হওয়ার পরামর্শ ইউজিসির

সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে মশিউর রহমান বলেন, বিদ্যুতের ক্ষেত্রে আমরা করব সাশ্রয়, তারা করবে লুটপাট। আমরা রাত আটটার পর সকল শপিংমল, দোকানপাট বন্ধ করে দিব, আর তারা তাদের ভাই ব্রাদারদের নতুন নতুন প্রকল্প দিয়ে বেড়াবেন। আমরা দেশের কথা চিন্তা করে যে টাকা বাচাব, তারা সেই অর্থ দিয়ে তাদের ভাই ব্রাদারদের সমৃদ্ধ করবে। এ দেশটা কারো লুটের ক্ষেত্র নয়। এদেশটা লুট করে তারা সুবরা বানাবে, আর তারা পাড়ি জমাবে বিদেশ।

তিনি আরও বলেন, আমরা বারবার বলে এসেছি বাংলাদেশের জ্বালানি খাতকে নবায়নযোগ্য জ্বালানির দিকে নিয়ে যেতে হবে। কিন্তু তারা কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। তারা শুধু উন্নয়ন উন্নয়ন বলে, আজকে সেই উন্নয়ন আমাদের হাতে হারিকেন ধরিয়ে দিচ্ছে। তাই আমরা হারিকেন মিছিল করছি।


x