৪-এ ৩.৬৮ পেয়ে সারাদেশে প্রথম কুইন আরা

কুইন আরা
কুইন আরা  © সংগৃহীত

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজ বিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতক (সম্মান) ফাইনাল পরীক্ষায় সারাদেশে প্রথম হয়ে স্বর্ণপদক জয় করলেন মাগুরার মেয়ে কুইন আরা। তিনি মাগুরার সদরের নাজির আহমেদ কলেজ থেকে স্নাতক (সম্মান) পরীক্ষায় সিজিপিএ-৪ এর মধ্যে ৩ দশমিক ৬৮ পেয়েছেন।

কুইন জেলার রাজাপুর ইউনিয়নের ঝগড়দিয়া গ্রামের মোস্তাফিজুর খানের মেয়ে। তার সাফল্যের স্বীকৃতিস্বরূপ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাঠানো হয়েছে ভাইস চ্যান্সেলর অ্যাওয়ার্ড ২০১৭-এর মেডেল ও সনদপত্র। গত ১১ ফেব্রুয়ারি বিকেলে মেডেল ও সনদপত্র কুইনের হাতে তুলে দেন কলেজের অধ্যক্ষ খন্দকার হায়াত আলী।

জানা গেছে, বাবা-মায়ের ২ ভাই আর ৫ বোনের মধ্যে কুইন আরা চার নম্বর। ভাইবোন সবাই লেখাপড়া করেন। মা শাহীন আরা বেগম গৃহিনী। বাবা মোস্তাফিজুর খান ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী। ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী ছিলো কুইন আরা।

কুইন আরা জানান, ভালো ফল করবেন জানতেন তিনি তবে দেশসেরা হবেন ভাবেননি। দারিদ্র্যতার কারণে তিনি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিতে পারেননি। বাড়ির পাশে নহাটা কলেজিয়েট স্কুল থেকে মানবিক বিভাগে এসএসসিতে ৪ দশমিক ৬৯ ও এইএসসিতে জিপিএ-৫ পান।

তিনি জানান, বাবার অভাবের সংসারের টানাপড়েন ও মেয়ে হওয়ার কারণে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষাও দিতে পারেন নি। অভাবের কারণে এক সময় পড়ালেখা বন্ধের উপক্রম হয়েছিল। পরিবার থেকে বিয়ের জন্য চাপ দেওয়া হচ্ছিল।

কুইনের বাবা মোস্তাফিজুর খান বলেন, ‘কুইন ছোটবেলা থেকে পড়ালেখায় ভালো। দারিদ্রতার কারণে তাকে ঠিকমতো সুযোগ-সুবিধা দিতে পারিনি। বাইরে পড়তে যাওয়ার খুব ইচ্ছা ছিল অভাবের কারণে সম্ভব হয়নি।’

নাজির আহমেদ কলেজের অধ্যক্ষ খন্দকার হায়াত আলী বলেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কুইনের সাফল্যের খবর ফোনে জানালে বিশ্বাস করতে পারিনি। প্রায় আড়াই হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দুই লাখ পরীক্ষার্থীর মধ্যে দেশসেরা হওয়া সত্যিই অভূতপূর্ব সাফল্য। নিভৃত গ্রামের সদ্য চালু হওয়া কলেজের একজন শিক্ষার্থী দেশসেরা হওয়ায় আমরা গর্বিত।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ