সবাই পরীক্ষা দিতে আগ্রহী

সবাই পরীক্ষা দিতে আগ্রহী
  © ফাইল ফটো

নির্ধারিত সময়েই আগামী ১৯ মার্চে ৪১তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা নিতে চায় সরকারী কর্ম কমিশন (পিএসসি)। এ পরীক্ষা পেছানোর এখনও কোনও পরিকল্পনা নেই। যদিও এই বিসিএসের আবেদনকারীদের একাংশ পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার দাবি তুলেছেন।  

পিএসসির চেয়ারম্যান মো. সোহরাব হোসাইন রবিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) গণমাধ্যমকে বলেন, আমাদের পরীক্ষা পেছানোর কোনও পরিকল্পনা নেই। সবাই পরীক্ষা দিতেই আগ্রহী।

জানা গেছে, আবেদনকারীদের একাংশ পরীক্ষা পেছানোর দাবিতে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছে। শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন তারা। শনিবারও (২৭ ফেব্রুয়ারি) তারা মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে। তাছাড়া ফেসবুকে বিভিন্ন গ্রুপ খুলে পরীক্ষা পেছানোর দাবিতে জনমত গড়ে তোলার চেষ্টা করছেন।

৪১তম বিসিএস পেছানোর দাবিতে আন্দোলনকারীরা বলছেন, করোনার কারণে সব পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের ভ্যাকসিন না দিয়ে ক্যাম্পাসও খোলা হবে না। তাহলে এত বড় একটি পরীক্ষা কেন এত তাড়াতাড়ি নেয়া হবে?

তারা আরও বলছেন, ৪১তম বিসিএসে চার লাখ ৭৫ হাজার প্রার্থী আবেদন করেছেন। অভিভাবক মিলিয়ে এই পরীক্ষায় প্রায় ৮/৯ লাখ মানুষের সমাগম হবে। এত বিপুল সংখ্যক মানুষের চলাচলের কারণে অনেকেই করোনায় আক্রান্ত হবেন। তাই ঝুঁকি নিয়ে পরীক্ষায় বসতে চান না তারা। এজন্য অবিলম্বে পরীক্ষা পেছানোর দাবি তাদের।

পিএসসি সূত্রে জানা গেছে, বিভিন্ন ক্যাডারে দুই হাজার ১৬৬ শূন্যপদে প্রার্থী নিয়োগ দিতে ৪১তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয় ২০১৯ সালে নভেম্বরে। ২০১৯ সালের ৫ ডিসেম্বর থেকে ২০২০ সালের ৪ জানুয়ারি পর্যন্ত আবেদন জমা নেওয়া হয়।

প্রার্থীদের মধ্যে প্রশাসন ক্যাডারে সহকারী কমিশনার পদে ৩২৩ জনসহ সাধারণ ক্যাডারে ৬৪২ জন, প্রফেশনাল ও টেকনিক্যাল ক্যাডারে ৬১৯ জন, সাধারণ শিক্ষা ক্যাডারে ৮৯২ জন, সহকারী শিক্ষক প্রশিক্ষণের জন্য ১৩ জনসহ মোট দুই হাজার ১৬৬ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে।

ঢাকা, রাজশাহী, চট্টগ্রাম, খুলনা, বরিশাল, সিলেট, রংপুর ও ময়মনসিংহ কেন্দ্রে প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ