হাই হিলে মেয়েদের যত ক্ষতি

হাই হিলে মেয়েদের যত ক্ষতি
  © প্রতীকি ছবি

বর্তমান যুগের মেয়েরা প্রায় সকলেই অত্যধিক ফ্যাশন সচেতন। পোশাক পরিচ্ছদে তারা সবসময়ই ফ্যাশন পছন্দ করেন। হাই হিল ও তেমনি একটি ফ্যাশন অনুষঙ্গ মেয়েদের জন্য। হাই হিল পছন্দ করে না এবং পরে না এমন মেয়ে খুজে পাওয়া কঠিন ব্যাপার। গবেষণায় দেখা গেছে, যাদের বয়স ১৮-২৪ বছর তারাই সব থেকে বেশি (৪৯% মেয়ে) হাই হিল পরিধান করেন। অনেকেই আছেন যাদেন নিত্যদিনের হাঁটার সঙ্গী এই হাই হিল।

কিন্তু কথা হলো এই হাই হিল আসলে কতটা নিরাপদ? একবারও কি আমাদের মেয়েরা এই ব্যাপারে ভেবেছেন? নাকি তারা শুধু ফ্যাশন আর উচ্চতা বাড়ানোর অনুষঙ্গ হিসেবে হাই হিল নিয়মিত ব্যবহার করে যাচ্ছেন। আমার মনে হয় তারা এটি আসলে কতটুকু নিরাপদ এই ব্যপারে একবারও ভেবে দেখেননি। প্রকৃতপক্ষে হাই হিল নিয়মিত পরিধান করলে অনেক ধরনের ক্ষতি হতে পারে। আসুন তাহলে জেনে নেয়া যাক হাই হিল পরলে কি কি ক্ষতি হতে পারে-

রক্তনালী সংকোচন
হাই হিল সাধারনম একট আটসাঁট ও চোথা আকৃতির হয় যাতে এটি দেখতে ফ্যাশনেবল মনে হয়। কিন্তু এই আটোসাঁটো হাই হিলের কারণে পায়ে থাকা রক্তনালীগুলোতে রক্তপ্রবাহ অনেকাংশে কমে যায় ফলে রক্তনালী সংকুচিত হয়ে যায়। পরবর্তীতে কিছু কিছু ক্ষেত্রে অতিরিক্ত চাপ সৃষ্টির ফলে রক্তনালী ছিঁড়ে যেতে পারে যেটি খুবই ভয়ঙ্কর।

জয়েন্টে ব্যাথা
হাই হিল পরিধান করলে স্বাভাবিকের তুলনায় উচ্চতা বেড়ে যায়। ফলে চলাচলে নানান ধরনের বিঘ্নতা সৃষ্টি হয় কারন উচ্চতা বাড়ার জন্য আমাদের হাঁটার যে স্বাভাবিক গতি প্রকৃতি সেটি বদলে যায়। পা একদম সোজাভাবে থাকে ফলে বাঁকানো যায়না। এইজন্য হাঁটুতে প্রচুর চাপ পড়ে এবং জয়েন্ট পেইন শুরু হয়। যেটি একবারেই কাম্য নয়। আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন অব অর্থোপেডিক সার্জন এর তথ্যমতে এই জয়েন্ট পেইনই ধীরে ধীরে আর্থাইটিস এ রুপ নেয়।

ফোসকা পরা
পায়ের চামড়ার সাথে হিলের ঘর্ষণ ও আটোসাটো হওয়ার ফলে কিছুক্ষণ হাঁটার পরেই পাঁয়ে ফোসকা পরে যেতে পারে। যেটি খুবই অস্বস্তিদ্বায়ক ও অনাকঙ্খিত।

ব্যাক পেইন
হাই হিল পরলে হাঁটার সময় এটি পেলভিসকে প্রভাবিত করে ফলে কোমরের উপর প্রচুর চাপ পরে। যা পরবর্তীতে ব্যাক পেইনে রুপ নেয়। অনেক সময় এই ব্যাক পেইন আবার অস্টিপোরোসিস এর কারন হয়ে দাঁড়ায়।

পায়ে ব্যাথা
গবেষণা বলছে হাই হিলের আকৃতি ও গঠন আলাদা হওয়ায় কয়েকদিন পরলেই পায়ে ব্যাথা হতে পারে পায়ের তলা অথবা গোড়ালীতে।

মেরুদন্ড বেকে যেতে পারে
গবেষণায় দেখা গেছে প্রতিনিয়ত হাই হিল পরলে মেরুদন্ডের আকৃতি পাল্টে বেঁকে যেতে পারে।

হাটুতে ব্যাথা
অস্বাভাবিক অবস্থানের জন্য কিছুদিন হাই হিল পরার ফলে হাঁটুতে ব্যাথা হতে পারে। এবং এটি কিছুদিন পর অস্টিওআর্থাইটিসে রুপ নিতে পারে।

কিভাবে আপনি নিরাপদ ও পরিধাণযোগ হিল পছন্দ করবেন?

১. হাই হিলের উচ্চতা ২ ইঞ্চির মধ্যে রাখুন।

২. দুপুরের পরে জুতা কিনুন। কারণ এ সময়ে জুতা সবচেয়ে বেশি প্রসারিত অবস্থায় থাকে।

৩. তলা সমতল এমন জুতা পছন্দ করুন।

৪. আরামদায়ক জুতা পছন্দ করুন।

৫. অল্প কয়েক ঘণ্টার জন্য এ ধরনের জুতা পরুন।

৬. সাধারণ পোশাক পরিধান করুন।

৭. অর্থোপেডিক প্যাড ব্যবহার করুন।

৮. হিলকে প্রসারিত করুন।

৯. বিভিন্ন সময়ে ভিন্ন ধরনের জুতা ব্যবহার করুন।

আসুন স্বাস্থ্যঝুঁকি এড়াতে হাই হিল পরিহার করি। সুস্থ-সবল জীবনযাপন করি। একটু সচেতনতাই পারে আমাদের সুস্থ রাখতে।

লেখক: শিক্ষার্থী, ফলিত পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তি বিভাগ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া
ই-মেইল: [email protected]


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ