দুই চেয়ারম্যানসহ শিক্ষা প্রশাসনের ৫ পদ ফাঁকা

চেয়ারম্যান
লোগো  © টিডিসি ফটো

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন গুরুত্বপূর্ণ তিনটি প্রতিষ্ঠানের পাঁচটি পদ ফাঁকা রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে এই পদগুলো ফাঁকা থাকলেও তা পূরণের উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে না। এতে করে শিক্ষা প্রশাসনে স্থবিরতা দেখা দিয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) এবং জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) এই তিনটি প্রতিষ্ঠানের পাঁচটি গুরুত্বপূর্ণ পদ ফাঁকা রয়েছে। এর মধ্যে দুটি প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যানের নেই। এসব পদে অতিরিক্ত হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ওই প্রতিষ্ঠানেরই আরেক কর্মকর্তা। 

ওই সূত্রের তথ্য অনুযায়ী, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানের পদটি প্রায় তিন মাস ধরে ফাঁকা রয়েছে। এই পদে দায়িত্ব পালন করছেন বোর্ডের সচিব অধ্যাপক তপন কুমার সরকার। তিনি অতিরিক্ত হিসেবে দায়িত্ব পালন করলেও গুরুত্বপূর্ণ কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারছেন না।

বেসরকারি শিক্ষকদের নিয়োগদাতা প্রতিষ্ঠানে এনটিআরসিএতে এক বছরেরও বেশি সময় ধরে একটি সদস্যের পদ ফাঁকা রয়েছে। এই পদটিতে অতিরিক্ত হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন প্রতিষ্ঠানটির আরেক সদস্য এ বি এম শওকত ইকবাল শাহীন। এক সাথে দুই দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে নাস্তানাবুদ হতে হচ্ছে তাকে।

আরও পড়ুন: এক বছরে দুইবার মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা!

এনসিটিবির চেয়ারম্যান পদসহ আরও দুটি পদ ফাঁকা রয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির সাবেক চেয়ারম্যান ফরহাদুল ইসলাম অবসরে যাওয়ার পর চেয়ারম্যানের রুটিন দায়িত্ব পালন করছেন এনসিটিবি সদস্য (শিক্ষাক্রম) মো. মশিউজ্জামান। চেয়ারম্যান ছাড়া প্রতিষ্ঠানটির দুটি সদস্য পদ প্রায় এক বছর ধরে ফাঁকা।

নিয়ম অনুযায়ী শিক্ষা ক্যাডারে নিয়োগপ্রাপ্তদের মধ্য থেকে পদোন্নতি দিয়ে থাকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। আর চেয়ারম্যান নিয়োগ দিয়ে থাকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এনটিআরসিএ ও এনসিটিবির সদস্যের ফাঁকা থাকা পদগুলো দ্রুত পূরণের আশ্বাস দিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

জানতে চাইলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কে এম আলী আজম দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে বলেন, আমরা চেয়ারম্যানের পদগুলো পূরণ করতে পারব না। ঢাকা শিক্ষা বোর্ড ও এনসিটিবির পরবর্তী চেয়ারম্যান কে হবে সেটি শিক্ষা মন্ত্রণালয় ঠিক করবে। তবে এনটিআরসিএ এবং এনসিটিবির ফাঁকা পদগুলো দ্রুত পূরণের উদ্যোগ নেওয়া হবে।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ড ও এনসিটিবির চেয়ারম্যান নিয়োগের বিষয়ে জানতে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আবু বকর সিদ্দীককে একাধিকবার কল দেওয়া হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেন নি। 


x

সর্বশেষ সংবাদ