ছাত্রের মৃত্যুর পর ইন্টার্ন চিকিৎসক ও শিক্ষার্থীদের পাল্টাপাল্টি বিক্ষোভ

ইন্টার্ন চিকিৎসক ও শিক্ষার্থীদের পাল্টাপাল্টি বিক্ষোভ
শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ইন্টার্ন চিকিৎসক ও শিক্ষার্থীদের পাল্টাপাল্টি বিক্ষোভ  © সংগৃহীত

বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যথাযথ নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবিতে সব গেট আটকে বিক্ষোভ করেছে ইন্টার্ন চিকিৎসকরা। একই সময়ে চিকিৎসকের অবহেলায় রোগীর মৃত্যুর অভিযোগে বিচারের দাবিতে বান্দ রোড অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে ইসলামিয়া কলেজের শিক্ষার্থীরা। এতে হাসপাতাল এলাকায় উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।  বিক্ষোভে চরম দুর্ভোগে পড়ে রোগীরা।

জানা গেছে, শনিবার দুপুরে ইসলামিয়া কলেজের তিনজন ছাত্র সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়। এর মধ্যে মো. রিয়াদুল নামে এক ছাত্র মারা যায়। স্বজন ও সহপাঠীদের অভিযোগ, চিকিৎসার অবহেলায় তাদের রোগী মারা গেছে। এ নিয়ে ইন্টার্ন চিকিৎসক আব্দুল্লাহ ইমরানকে মারধর করে তারা।

একপর্যায়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলে শান্ত হয় ইন্টার্নরা। এ সময় তারা রিয়াদের সহপাঠী শাওন ও আনোয়ারকে পুলিশে সোপর্দ করে।

আরো পড়ুন: কলেজে ঢুকে শিক্ষকদের মারধরের প্রতিবাদে কর্মবিরতির ডাক

কর্মস্থলে নিরাপত্তার দাবিতে রাত ৯টার দিকে জরুরি বিভাগ ও মাঝ গেট আটকে বিক্ষোভ করে ইন্টার্ন চিকিৎসকরা। নিরাপত্তা নিশ্চিত না হলে কাজে ফিরবে না বলে ঘোষণা দেয় তারা। অপরদিকে রোগীর মৃত্যুর অভিযোগে রাত সাড়ে ৯টার দিকে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে ইসলামিয়া কলেজের শিক্ষার্থীরা।

এ ঘটনায় ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন মেডিকেলের পরিচালক এইচ এম সাইফুল ইসলাম এবং বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মো. ফজলুর রহমান। সিটি মেয়র সাদিক আবদুল্লাহও ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করেন।


x