সেলিম পুত্রের ১ বছরের কারাদণ্ড

এরফান
এরফান  © সংগৃহীত

নৌ-বাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধরের পর ঢাকা-৭ আসনের এমপি হাজী সেলিমের ছেলে দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর ইরফান সেলিমের এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রামমাণ আদালত। আজ সোমবার সন্ধ্যায় র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরোয়ার আলম তাকে এ সাজা দেন। অবৈধ অস্ত্র এবং মাদক রাখার অভিযোগে এই শাস্তি দেন আদালত।

এর আগে এদিন সোমবার এরফান সেলিমের বাসায় অভিযান চালিয়ে বেশ কিছু সামগ্রী উদ্ধার করেছে র‌্যাব। দুপুর ১২টায় অভিযান শুরু হওয়ার পর বিকাল ৫টা পর্যন্ত চলে। এতে এরফানের বাসা থেকে বেশ কিছু অবৈধ জিনিস উদ্ধার করে র‌্যাব।

এর মধ্যে ভবনের চতুর্থ ও পঞ্চম তলায় অভিযান চালিয়ে ওয়্যারলেস সিস্টেম সরঞ্জাম ও ৩৮টি কালো ওয়াকিটকি উদ্ধার করা হয়। যা সরকারি কর্মকর্তারা ছাড়া ব্যবহারের অনুমতি নেই। এছাড়া সেখান থেকে লোডেট একটি বিদেশি পিস্তল (আমেরিকান), একটি চাইনিজ কুড়াল, ৭ বোতল বিদেশি মদ ও বেশ কিছু বিয়ার জব্দ করে।

উদ্ধারকৃত সামগ্রীর মধ্যে আছে একটি আগ্নেয়াস্ত্র, যেটা অবৈধ বলে ধারণা করছে র‍্যাব। সেটির কাগজপত্র এখনও দেখাতে পারেননি তিনি। এছাড়া বিপুল সংখ্যক মদের বোতল রয়েছে বাড়িটিতে। পাওয়া গেছে বেশ কিছু বিয়ারের ক্যান।

এর আগে সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) ভোরে ভুক্তভোগী নৌবাহিনীর কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট ওয়াসিম নিজেই বাদী হয়ে ধানমন্ডি থানায় মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের ছেলে ইরফান সেলিম (৩৭), তার বডিগার্ড মোহাম্মদ জাহিদ (৩৫), হাজী সেলিমের মদীনা গ্রুপের প্রটোকল অফিসার এবি সিদ্দিক দিপু (৪৫), গাড়িচালক মিজানুর রহমানসহ (৩০) অজ্ঞাতপরিচয়ের দু-তিনজনকে আসামি করা হয়েছে।


মন্তব্য