জুয়া ঠেকাতে বন্ধ ক্যাবল নেটওয়ার্ক!

এলাকার দোকানে খেলা দেখছেন সাধারণ মানুষ
এলাকার দোকানে খেলা দেখছেন সাধারণ মানুষ  © সংগৃহীত

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) চলাকালীন জুয়া রোধে ক্যাবল নেটওয়ার্ক (ডিস) বন্ধের ঘোষণা দিয়েছেন পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সাজেল। ফেনীর পরশুরামে এ ঘটনা ঘটে।

তার এ ঘোষণা অভিভাবকসহ সচেতন মহলের প্রশংসা কুড়িয়েছে। অবশ্য সাধারণ দর্শক ও ক্রিকেটপ্রেমীরা অনেকে নেতিবাচক মন্তব্য করেছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

জানা গেছে, আইপিএল খেলা দেখার জন্য শহর ও গ্রামাঞ্চলের হাট-বাজারের চায়ের দোকানে, হোটেল-রেস্তোরাঁয় বিভিন্ন বয়সের ও শ্রেণি-পেশার মানুষ ভিড় জমান। এ সুবাদে সীমান্তবর্তী উপজেলা সদর ও গ্রামীণ হাট-বাজারে কিছু মানুষ আইপিএলের চার-ছক্কার জুয়ায় মেতে ওঠেন।

বলের উইকেট ও ব্যাটের রানে অনেকে সর্বস্বান্ত হন। প্রতিবারের মতো আইপিএল নিয়ে জুয়ার মহোৎসব থামাতে এবার খেলা চলাকালীন পৌরসভা ও উপজেলার ৩ ইউনিয়নে ক্যাবল নেটওয়ার্ক (ডিস) বন্ধের ঘোষণা দিয়েছেন সাজেল চৌধুরী।

তিনি জানান, খেলা চলাকালীন সময় কিশোর-যুবকরা যাতে বাড়ির বাইরে বের না হয় সেটি নিশ্চিত করতে হবে। পাশাপাশি ডিস সংযোগ বন্ধ রাখা হবে। এছাড়া প্রতিটি এলাকায় আড্ডা ঠেকাতে টিম করে দেয়া হয়েছে। তারা খেলা চলাকালীন সময় তদারকি করবে।

উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ইয়াছিন শরীফ মজুমদার জানান, জুয়া ও নেশার কবল থেকে যুব সমাজকে রক্ষা করতে হবে। এজন্য আইপিএল খেলা চলাকালীন ডিস বন্ধের সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানাই।

পরশুরাম মডেল থানার ওসি মো. শওকত হোসেন জানান, জুয়ার বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তথ্য পেলে পুলিশ অভিযান পরিচালনা করবে। পুলিশ এ বিষযে তৎপর রয়েছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে পৌর মেয়রের এ সিদ্ধান্ত নিয়ে অনেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নেতিবাচক মন্তব্য করছেন। তাদের মতে, ডিসলাইন বন্ধ করে দেয়া হলে বাসা-বাড়িতে সাধারণ দর্শকরা অন্য অনুষ্ঠান থেকে বঞ্চিত হবেন। জুয়াড়িদের জন্য ক্রীড়ামোদীরা খেলা দেখা থেকে বঞ্চিত হবেন, এটা অযৌক্তিক।


মন্তব্য