স্বাস্থ্যবিধি মেনে বইমেলায় যাবেন: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  © ফাইল ফটো

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বারবার বলছি স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিজেকে সুরক্ষিত রাখবেন। বইমেলায় যাবেন, বইও দেখবেন, তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে। নিজেকে সুরক্ষিত করা মানে অন্যকেও সুরক্ষিত করা। বৃহস্পতিবার বিকেলে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি বইমেলার উদ্বোধনের সময় এ কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, একুশে বইমেলা আমাদের প্রাণের মেলা। সরকারে কিংবা বিরোধী দলে যেখানেই থাকি, আমি সবসময় বইমেলায় অংশগ্রহণ করি। এবার সশরীরে উপস্থিত না থাকতে পারলেও ভার্চুয়ালি উপস্থিত থেকে আপনাদের সঙ্গে অংশ নিচ্ছি।

উদ্বোধনের শুরুতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় চার নেতা, ভাষা শহীদ ও মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। তারপরই মেলা উন্মুক্ত হয় সবার জন্য। উদ্বোধনের সময় নতুন প্রজন্মকে বই পড়ার আহবান জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি আরও বলেন, এবারের বইমেলা আমাদের জন্য অত্যন্ত চ্যালেঞ্জের বিষয়; করোনা মোকাবেলায় আমরা টিকা প্রদান কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে চলেছি। তারপরও যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে সবাইকে বইমেলায় আসতে হবে।

                                      গ্রন্থমেলা উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

মেলা উৎসর্গ করা হয় মহান মুক্তিযুদ্ধের বীর শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধায়। এবারের মেলার মূল ভাবনা ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী’। করোনাভাইরাসের কারণে একমাস দেরিতে শুরু হওয়া বইমেলা ১৮ মার্চ থেকে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত চলবে।

এদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর লেখা ‘আমার দেখা নয়া চীন’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন। এ বইটি সবাইকে পড়ে দেখার অনুরোধ জানান তিনি। পাশাপাশি ‘বাংলা একাডেমী সাহিত্য পুরস্কার ২০২১’ দেওয়া হয় ১০ সাহিত্যিককে।

উল্লেখ্য, বাংলা একাডেমীসহ মেলায় অংশ নেওয়া অন্যান্য প্রতিষ্ঠান বইয় ২৫ শতাংশ ছাড়ে বিক্রি হবে মেলায়। ছুটির দিন ছাড়া প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে রাত সাড়ে আটটা পর্যন্ত মেলা চলবে। ছুটির দিন বেলা ১১টা থেকে রাত সাড়ে আটটা পর্যন্ত মেলা চলবে।

বইমেলার আগামীকালের অনুষ্ঠানসূচি

আগামীকাল ১৯ মার্চ (শুক্রবার)। অমর একুশে বইমেলার দ্বিতীয় দিন। মেলা চলবে সকাল ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত। বিকেল ৪টা বইমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী : বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন সুভাষ সিংহ রায়। আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন আরমা দত্ত এমপি এবং নাসির উদ্দীন ইউসুফ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন অধ্যাপক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ