সাত কলেজ শিক্ষার্থীদের নীলক্ষেত অবরোধ, যান চলাচল বন্ধ

নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেছেন সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা
নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেছেন সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা  © টিডিসি ফটো

চলমান পরীক্ষার স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার এবং হল ক্যাম্পাস খুলে দেওয়ার দাবিতে ফের নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান নিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সাত কলেজ শিক্ষার্থীরা। আজ বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টা থেকে সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ করেন। শিক্ষার্থীদের অবরোধে সড়কের যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের খামখেয়ালি মনোভাবের বহিঃপ্রকাশ এই সিদ্ধান্ত। অচিরেই পরীক্ষার স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করে চলমান পরীক্ষা শেষ করার দাবি জানান তারা।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের নেতা ও ঢাকা কলেজের ছাত্র এ কে এম আবু বকর বলেন, করোনা মহামারির মধ্যে হঠাৎ করে কেন পরীক্ষা শুরু করলো? কি কারণে এতোগুলো শিক্ষার্থীদের ঢাকায় আনলো? এখন আবার কেন মাঝপথে পরীক্ষা বন্ধ করে দিলো? শিক্ষার্থীদের এই আর্থিক ক্ষতি কে পূরণ করবে?

নীলক্ষেত মোড়ে সাত কলেজ শিক্ষার্থীদের অবস্থান

আবু বকর বলেন, যেখানে করোনার প্রভাবে শিক্ষার্থীদের অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো নয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এই ধরনের হটকরি সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা প্রত্যাখ্যান করেছে। সাত কলেজের চলমান পরীক্ষা সমূহ চলতি রুটিনে নিয়ে নেওয়ার দাবিতে গতকালও আমরা বিক্ষোভ করেছি। আজকে সকাল থেকে সে ধারাবাহিক কর্মসূচি শুরু হয়েছে।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সাথে সাত কলেজের অধ্যক্ষদের বৈঠকে অধিভুক্ত কলেজগুলোর সব পরীক্ষা স্থগিতের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। পরে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় এদিন সন্ধ্যায় শিক্ষার্থীরা নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেন।

নীলক্ষেত মোড় অবরোধ কর্মসূচিতে আসা শিক্ষার্থীরা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের হঠকারী সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে তারা নীলক্ষেত মোড়ে দাঁড়িয়েছেন। দেশের সব মার্কেট অন্যান্য প্রতিষ্ঠান খোলা থাকলেও শুধু মাত্র শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে তাঁদের ভবিষ্যৎকে অনিশ্চয়তার দিতে ঠেলে দিচ্ছে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ