ঢাবিতে ‘মেধাবীর হাসি’ কর্মসূচি হাসি ফুটিয়েছে ৩০৫টি পরিবারে

অসহায়দের পাশে
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ফোরাম   © টিডিসি ফটো

মহামারি করোনার কারণে সংকটে থাকা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করার উদ্যোগ নিয়েছে ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ফোরাম’৷

জানা যায়, গত ৭ মে ‘মেধাবীর হাসি’ কর্মসূচি গ্রহণের মাধ্যমে ঢাবির সংকটাপন্ন ১ম ও ২য় বর্ষের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আবেদন গ্রহণ করা হয়। এতে মোট আবেদন জমা পড়ে ৩০৭টি এবং একই সাথে আগ্রহী দাতাদের কাছ থেকে উপহার বাবদ নগদ অর্থ গ্রহণ করা হয়।

সংগঠন সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (১৩ মে) এ কর্মসূচির মাধ্যমে আর্থিকভাবে অসচ্ছল ৩০৫ জন শিক্ষার্থীর মাঝে প্রায় ২ লক্ষ ৩৪ হাজার টাকা উপহার প্রদান করা হয়। শিক্ষার্থীদের নাম ও পরিচয় সম্পূর্ণ গোপন রেখে তাদের পরিবারের আর্থিক অসচ্ছলতা ও পরিবারের সদস্য সংখ্যার উপর ভিত্তি করে চারটি শ্রেণীতে আবেদন ভাগ করা হয়েছিল। প্রথম শ্রেণীতে অধিক সমস্যাগ্রস্থদের প্রত্যেককে ২০০০ টাকা, দ্বিতীয় শ্রেণীতে ১৫০০ টাকা করে, তৃতীয় শ্রেণীতে ১০০০ করে এবং চতুর্থ বা শেষ ধাপে ৫০০ টাকা করে দেয়া হয়েছে।

এছাড়া এই আবেদনকারীদের মধ্য হতে অসুস্থ ও বিপন্নপ্রায় আবেদনকারীদের বাছাই করে ডাকসুর সাবেক জিএস ও টিম পজিটিভ বাংলাদেশ (টিপিবি) এর প্রতিষ্ঠাতা গোলাম রাব্বানীর মাধ্যমে ‘নাবিহা ট্রাস্ট’তে আবেদন পাঠানো হয় এবং সেখান থেকে আরও ৬৩ জনকে ৪০০০ টাকা করে মোট ২ লাখ ৫২ হাজার টাকা প্রদান করা হয়

এ কর্মসূচির প্রধান উদ্যোক্তা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ফোরাম এর প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়াস সিজার তালুকদার বলেন, 'আনন্দ ভাগ করলে বাড়ে, কমে না। আমরা সমস্যাগ্রস্থদের জন্য এটা হাতে নিয়েছিলাম এবং এতে অসংখ্য মানুষ অংশগ্রহণ করে এটাকে সফল করেছে। আমরা শুধু এই ভালোবাসা পৌঁছে দেয়ার ব্যবস্থা করেছি। আমরা ছিলাম ‘ভালোবাসার ডাক পিয়ন’।

তিনি আরও বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ফোরাম-এর ‘মেধাবীর হাসি’ কর্মসূচিতে মোট আবেদন হয়েছিল ৩০৭ (অনলাইন ও অফলাইন)। টাকা দেয়া হয়েছে ৩০৫ জনকে। বাকি ২ জনকে ফোনে পাওয়া যায়নি তাই দেয়া সম্ভব হয়নি, তারা ঈদের পর যোগাযোগ করলেও তাদেরকে টাকা পোঁছে দেওয়া হবে। যে দুঃসময় আমাদের শিক্ষার্থী বন্ধুদের সামনে এসে হাজির হয়েছে তা মোকাবেলা করার আত্মবিশ্বাস হয়ে আমরা সব সময় তাদের পাশে দাঁড়াতে চাই।

‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মানবিক বন্ধুসভা’র প্রতিষ্ঠাতা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ফোরামের অন্যতম সংগঠক সিদ্দিকী মহসীন পাটওয়ারী বলেন, আমরা ঈদের আনন্দকে আরো প্রাণবন্ত করতে ঢাবিয়ানদের জন্য এই মেধাবীর হাসি কর্মসূচি হাতে নিই৷ শিগগির আমরা আরও উদ্যোগ নিবো।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ