‘মঈনকে এবিউজ করা ঠিক নয়, আমাকে এবিউজ করা ঠিক’

‘মঈনকে এবিউজ করা ঠিক নয়, আমাকে এবিউজ করা ঠিক’
  © সংগৃহীত

ইংল্যান্ডের তারকা ক্রিকেটার মঈন আলীকে ‘জঙ্গি’ বলায় তাকে ‘এবিউজ’ করা হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন লেখিকা তসলিমা নাসরিন। তিনি বলেছেন, আমার দোষ কেন আমি মঈনকে ‘এবিউজ’ করেছি। এর মানে মঈন আলীকে এবিউজ করা ঠিক নয়, আমাকে এবিউজ করা ঠিক।

বুধবার নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এক স্ট্যাটাসে একথা বলেন তিনি। ফেসবুক স্ট্যাটাস তিনি লিখেছেন, টুইটারে হাজার হাজার এবিউজবিরোধী সেনা আমাকে এবিউজ করছে। অপমান অসম্মান অত্যাচার জীবনে কম দেখিনি। যত দিন বাঁচি ততদিন দেখতে হবে জানি।

ঝাঁকে ঝাঁকে মুসলিম মৌলবাদি, ফেক বাম, আমাকে না-পড়া লোক, আমার কিছুই না জানা লোক, পঙ্গপালের মতো আমার ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েছে, লক্ষ শকুন যেন জীবন্ত আমাকে খুবলে খাচ্ছে। পকেটমার সন্দেহে গরিব নিরীহ ছেলেকে উন্মত্ত জনতা যেমন পিটিয়ে মেরে ফেলে, সেরকম মনে হচ্ছিল আমার, যেন আমি সেই গরিব নিরীহ ছেলেটি।

তিনি লিখেছেন, দোষটা কী ছিল আমার? একটি জোক। আযান পড়লে যে মানুষ মাঠেই নিজের জায়নামাজ পেতে নামাজ পড়েন, খেলা চলতে থাকলে নাকি আম্পায়ারকে বলে চলেও যান নামাজ পড়তে, বিজয়ের শ্যাম্পেন খুললে দ্রুত সরে যান দূরে, বিয়ার কোম্পানীর লোগো থাকলে সেই জার্সি পরবেন না বলে জানিয়ে দেন, পয়গম্বরের আদেশ মাফিক গোঁফ ট্রিম করতে থাকেন, দাড়ি বড় করতে থাকেন, কোনও মেয়ে সাংবাদিককে সাক্ষাৎকার দিলে মুখের দিকে একটিবারও না তাকিয়ে সাক্ষাৎকার দেন তাঁকে নিয়ে যদি কৌতুক করিই, তাহলে কি টুইটারের একাউন্ট উড়ে যাবে? হ্যাঁ এমনই থ্রেট এসেছে।

‘‘আমাকে যারা গতকাল থেকে এবিউজ করছে, তারা তো অনেকেই শার্লি আব্দোকে সমর্থন করে। শার্লি আব্দো তো মস্করা করে বিখ্যাত লোকদের নিয়ে, তাহলে সেটা সমর্থন করে কিভাবে? নাকি ওরা ফরাসি বলে ওদের সমর্থন করা চলে!’’

সম্প্রতি টুইটারে মঈনকে ‘জঙ্গি’ বলে বিতর্কে জড়ান তসলিমা। টুইটারে বিতর্কিত এই লেখিকা লিখেছেন, ‘মঈন আলী যদি ক্রিকেটের সঙ্গে যুক্ত না থাকতেন, তবে সিরিয়ায় গিয়ে আইএসআইএস-এ যোগ দিতেন।’ তসলিমার মন্তব্যের পরপরই সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার বিপক্ষে অবস্থান নেন অনেকে। কেউ কেউ তাকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যও করতে থাকেন।


মন্তব্য