ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী বৃত্তি পাবে ২ হাজার মুক্তিযোদ্ধা পরিবার

ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী বৃত্তি পাবে ২ হাজার মুক্তিযোদ্ধা পরিবার
  © ফাইল ফটো

‘নতুন ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী মুক্তিযোদ্ধা সন্তান স্কলারশিপ স্কিম’ এর আওতায় দুই হাজার মুক্তিযোদ্ধার সন্তান/নাতী-নাতনীদের ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী বৃত্তি পাবে। ২০২০-২০২১ বর্ষে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান বা নাতি-নাতনিদের বৃত্তি প্রদানের লক্ষ্যে ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী মুক্তিযোদ্ধা সন্তান স্কলারশিপ স্কিমের আওতায় ছাত্র-ছাত্রীদের বৃত্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।

ভারত সরকারের আর্থিক সহায়তায় ঢাকাস্থ ভারতীয় হাইকমিশন এবং মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় যৌথভাবে এ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করবে। এই বৃত্তির ক্ষেত্রে স্নাতক পর্যায়ে এককালীন পঞ্চাশ হাজার এবং উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে এককালীন বিশ হাজার টাকা করে পাবে প্রত্যেক শিক্ষার্থী।

আবেদন করার যোগ্যতাঃ

স্নাতক পর্যায়ে অধ্যয়নরত আবেদনকারীকে ২০১৭-২০২০ সালের মধ্যে উচ্চ মাধ্যমিক/ সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। ২০১৭ সালের পূর্বে HSC/ সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীদের আবেদন করার প্রয়ােজন নেই। উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে অধ্যয়নরত আবেদনকারীকে ২০১৯-২০২০ সালের মধ্যে SSC/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। ২০১৯ সালের পূর্বে SSC/ সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীদের আবেদন করার প্রয়ােজন নেই।

আবেদনকারীর নিজ নামে ব্যাংক একাউন্ট থাকতে হবে এবং Bank Routing Number উল্লেখপূর্বক Bank Statement দাখিল করতে হবে যা সংশ্লিষ্ট ব্যাংক কর্মকর্তা কর্তৃক স্বাক্ষরিত হতে হবে। ব্যাংকের বিস্তারিত বিবরণ না থাকলে আবেদন বাতিল বলে গণ্য হবে।

উচ্চ মাধ্যমিক ও স্নাতক পর্যায়ে যারা একবার বৃত্তি পেয়েছে তাদের আবেদন করার প্রয়ােজন নেই। তবে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে বৃত্তি পাওয়ার পর ছাত্র ছাত্রী যদি স্নাতক পর্যায়ে অধ্যয়নরত থাকে তারা আবেদন করতে পারবে।

উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে অধ্যয়নরত ছাত্র-ছাত্রীদের SSC/ সমমান পরীক্ষায় GPA 3 বা তদূর্ধ্ব গ্রেড পেতে হবে এবং স্নাতক পর্যায়ে অধ্যয়নরত ছাত্র-ছাত্রীদের SSC/ সমমান এবং HSC/ সমমান পরীক্ষায় GPA 3 বা তদূর্ধ্ব গ্রেড পেতে হবে। (৬) ছাত্র-ছাত্রীকে অবশ্যই মুক্তিযােদ্ধার সন্তান বা নাতি-নাতনি হতে হবে।

আবেদন পদ্ধতিঃ

আবেদন ফরম ও প্রয়ােজনীয় নির্দেশাবলী মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট (www.molwa.gov.bd) থেকে সংগ্রহ করতে হবে।

আবেদনপত্র সচিব, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় বরাবর ডাকযােগে অথবা সরাসরি জমা দেয়া যাবে। খামের উপরে “নতুন ভারত বাংলাদেশ মৈত্রী মুক্তিযােদ্ধা সন্তান স্কলারশিপ স্কিম” লিখতে হবে।

আবেদনের সময়সীমাঃ আবেদনপত্র ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে ১৫ অক্টোবরের মধ্যে পৌঁছাতে হবে।

 


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ