তৃতীয় রিলিজ স্লিপ নিয়ে ভাবছি না: উপাচার্য

তৃতীয় রিলিজ স্লিপ
অধ্যাপক মশিউর রহমান ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় লোগো  © ফাইল ছবি

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি কার্যক্রমে তৃতীয় রিলিজ স্লিপ অথবা আসন সংখ্যা বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন ভর্তিচ্ছুরা। তবে আপাতত এ বিষয়ে ভাবা হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্য অধ্যাপক মশিউর রহমান। যদিও আগামীকাল শনিবার (১৫ জানুয়ারি) এ বিষয়ে একটি সিদ্ধান্ত জানানোর কথা ছিল কর্তৃপক্ষের।

তথ্যমতে, গত ১৮ অক্টোবর থেকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে অনার্স প্রথম বর্ষ ভর্তি কার্যক্রমে প্রথম রিলিজ স্লিপের আবেদন শুরু হয়। শেষ হয় ৩১ অক্টোবর। পরে গত ২৪ নভেম্বর থেকে ২য় রিলিজ স্লিপের আবেদন শুরু হয়। এ ধাপের আবেদন শেষ হয়েছে গত ০৬ ডিসেম্বর। এরপর থেকেই ভর্তিচ্ছুরা তৃতীয় রিলিজ স্লিপের দাবি তোলেন।

আরও পড়ুন: তৃতীয় রিলিজ স্লিপের দাবি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছুদের

ভর্তিচ্ছুরা বলছেন, ২০২০ সালে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের অটোপাস দেয়া হয়েছে। এজন্য জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা বেড়ে গেছে। যার কারণে তুলনামূলক কম জিপিএ পাওয়া শিক্ষার্থীরা প্রথম ও দ্বিতীয় রিলিজ স্লিপে আবেদন করেও আসন পাচ্ছেন না। তাই জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে তৃতীয় রিলিজ স্লিপের পাশাপাশি আসন সংখ্যা বৃদ্ধি করলে এ সমস্যা আর থাকবে না।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে অধ্যাপক মশিউর রহমান শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে বলেন, আমরা আপাতত তৃতীয় রিলিজ স্লিপের বিষয়ে ভাবছি না। এর পরিবর্তে আমরা আমাদের প্রফেশনাল ও ডিগ্রি কোর্সে শিক্ষার্থীদের ভর্তি হতে অনুপ্রাণিত করছি। আমাদের ডিগ্রি ও প্রফেশনাল কোর্সে শিক্ষার মাস বাড়ানোর চেষ্টা করছি।

আরও পড়ুন: রেজাল্টের ভিত্তিতেই জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি

তিনি বলেন, আমরা সনদধারী বেকার তৈরি করতে চাই না। সবার অনার্স করার দরকার নেই। সবাইকে অনার্সে সুযোগ দেয়া হলে প্রফেশনাল ও ডিগ্রি কোর্সে কারা ভর্তি হবেন? যারা প্রথম ও দ্বিতীয় রিলিজ স্লিপে কলেজ পায়নি তারা প্রফেশনাল অথবা ডিগ্রি কোর্সে ভর্তি হোক।

১৫ জানুয়ারির মধ্যে তৃতীয় রিলিজ স্লিপের বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানো প্রসঙ্গে অধ্যাপক মশিউর আরও বলেন, তৃতীয় রিলিজ স্লিপের বিষয়ে ১৫ জানুয়ারির মধ্যে সিদ্ধান্ত জানানোর বিষয়ে কিছু বলতে পারছি না। এ বিষয়ে আমার কিছু জানা নেই।


মন্তব্য

x