প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কুভিকে আলোচনা সভা

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজ
কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজ

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের ১২১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আগামী (২৪ নভেম্বর) বুধবার। এই উপলক্ষে কলেজ প্রশাসনের উদ্যোগে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। আলোচনা সভাটি বুধবার দুপুর ১২ টায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের ফেজবুক পেজ থেকে সরাসরি সম্প্রচার করা হবে।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন কুমিল্লা-৬ আসনের সাংসদ হাজী আ.ক.ম. বাহাউদ্দীন বাহার। বিশেষ অতিথি থাকবেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরী।

এছাড়া আরও উপস্থিত থাকবেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. আবদুল্লাহ আল হাসান চৌধুরী, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর কুমিল্লা অঞ্চলের পরিচালক অধ্যাপক সোমেশ কর চৌধুরী, কলেজ প্রতিষ্ঠাতার প্রদৌহিত্র (৪র্থ পুরুষ) প্রকৌশলী অশোক সিংহ রায়।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করবেন কুভিক অধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. রুহুল আমিন ভূঁইয়া, স্বাগত বক্তব্য রাখবেন কুভিক উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড.আবু জাপর খান। সমন্বয়ক থাকবেন কুভিক শিক্ষক পরিষদ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহজাহান। আলোচনা সভার সঞ্চলনা করবেন সহকারী অধ্যাপক জুবাইদা নূর খান।

১৮৯৯ সালের ২৪ নভেম্বর দক্ষিণ-পূর্ব বাংলার অন্যতম সেরা বিদ্যাপীঠ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন রায় বাহাদুর আনন্দ্র চন্দ্র রায়। এ কলেজটির নামকরণ করা হয়েছিল ব্রিটেনের তৎকালীন রানী ভিক্টোরিয়ার নামানুসারে। এরপরই ব্রিটিশ সরকার প্রতিষ্ঠাতাকে ‘রায় বাহাদুর’ উপাধিতে ভূষিত করে।

কলেজটি প্রতিষ্ঠার পর ব্রিটিশ সরকার তাকে রায় বাহাদুর উপাধি প্রদান করে।তার স্মতি রক্ষার্তে ভিক্টোরিয়া কলেজের ইন্টারমেডিয়েট শাখায় প্রধান ফটকে একটি সাদা রঙের ভাস্কর্য তৈরি করা হয়েছে। বিজ্ঞানী সত্যেন্দ্রনাথ বসু ছিলেন এই কলেজের প্রথম অধ্যক্ষ তিনি ১৯৪৭ সাল পর্যন্ত কর্মরত ছিলেন।ওই কলেজ বাংলাদেশ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এর অধিভুক্ত।

বর্তমানে ওই কলেজের চলমান অধ্যক্ষ প্রফেসর রুহুল আমিন ভূইয়া, শিক্ষায়তনিক কর্মকর্তা আছেন, ১২৫ জন,প্রশাসনিক কর্মকর্তা ২২০ জন, ৪টি অনুষদে ২০টি বিভাগে অনার্স ও ১৮টি বিষয়ে মাস্টার্স চালু।

বর্তমানে কলেজটি দুটি অংশে বিভক্ত। কান্দিরপার রানীদীঘির পাড়ে কলেজের ইন্টারমিডিয়েট শাখা এবং ধর্মপুরে অনার্স ও মাস্টার্স শাখা অবস্থিত।প্রায় ২৯,৯০০শ শিক্ষার্থীর পদচারণায় কলেজটি মুখরিত হয় প্রতিদিন।ওই কলেজে রয়েছে ১২টি সক্রিয় সাংস্কৃতিক সংগঠন।সংগঠনগুলো শিক্ষা ও সংস্কৃতির বিকাশে অবদান রাখছে।

ভাষা আন্দোলন ও স্বাধীনতা সংগ্রামে কলেজটির ভূমিকা ছিল অনন্য।উপমহাদেশের বিখ্যাত সংগীতজ্ঞ শচীন দেববর্মণ, সত্যেন্দ্রনাথ বসু,অদ্বৈত্য মল্লবর্মণ, ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত,অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম, হানিফ সংকেত, বিদ্যা সিনহা মিম,সংগীত শিল্পী আসিফ আকবরের মতো অসংখ্য খ্যাতনামা সাবেকদের পদচারণায় মুখরিত হয়েছিল ভিক্টোরিয়ার ক্যাম্পাস।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ