চলে গেলেন আইনের বাতিঘর ব্যারিস্টার রফিক-উল হক

সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল ও সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক-উল হক
সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল ও সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক-উল হক  © ফাইল ফটো

আইনের বাতিঘর খ্যাত সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল ও সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক-উল হক (৮৬) মারা গেছেন। আজ শনিবার সকাল ৮টা ৩০ মিনিটে রাজধানীর আদদ্বীন হাসপাতালে তিনি চিকিৎসাধীন তিনি ইন্তেকাল করেন।

এর আগে অসুস্থতার কারণে গত ১৫ অক্টোবর তাকে ওই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর গত ২০ অক্টোবর রাতে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে ভেন্টিলেশনে দেওয়া হয়। ভেন্টিলেশনে নেওয়ার পর তার যে সংকটাপন্ন অবস্থাতে ছিলেন সে থেকে অবস্থার কোনও পরিবর্তন বা উন্নতি হয়নি।

এর আগে শুক্রবার আদ্-দ্বীন হাসপাতালের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাহিদ ইয়াসমিন জানিয়েছিলেন, স্যারের রক্তের পরীক্ষানিরীক্ষাগুলো করা হয়েছে। কিন্তু তাতে খুব একটা উন্নতি দেখা যাচ্ছে না। মেডিক্যাল বোর্ডের চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলেছি। উনারা সবাই স্যারকে দেখেছেন।

তারাও বলেছেন, স্যারের অবস্থা সংকটাপন্ন। আমাদের আল্লাহ তায়ালার কাছে দোয়া করা ছাড়া আর কিছু করার নেই। আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি।

এদিকে ব্যারিস্টার রফিক-উল হক বার্ধক্যজনিত ইউরিন ইনফেকশন ও রক্ত শূন্যতার কারণে শারীরিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়ায় হাসপাতালে ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল।

তিনি ১৯৬০ সালে কলকাতায় আইনজীবী হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯৯০ সালে তিনি বাংলাদেশের অ্যাটর্নি জেনারেলের দায়িত্ব পালন করেন। সেনানিয়ন্ত্রিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে আইনজীবী হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন ব্যারিস্টার রফিক-উল হক।

ওই সময় তিনি বর্তমান প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াসহ অনেক রাজনীতিবিদের পক্ষে উচ্চ আদালতে আইনি লড়াই করেন।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ