মোবাইল চুরির অভিযোগে শিক্ষার্থীকে হাত-পা বেঁধে নির্যাতন, অভিযুক্ত আটক

নির্যাতন
মোবাইল চুরির অপরাধে শিক্ষার্থীকে হাত-পা বেঁধে নির্যাতন  © সংগৃহীত

নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলায় মুঠোফোন চুরির অভিযোগ তুলে শিহাব হোসেন (১৪) নামের এক শিশুকে হাত-পা বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ শুক্রবার সকালে উপজেলার বাগাচারা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার মূল অভিযুক্ত এক নৈশপ্রহরীকে আটক করেছে পুলিশ।

আটক হওয়া ওই ব্যক্তির নাম বকুল হোসেন (৫৫)। তিনি উপজেলার চৌমাশিয়া গ্রামের বাসিন্দা এবং বাগাচারা এলাকায় নির্মাণাধীন একটি অটো গ্যাস ফিলিং স্টেশনের নৈশপ্রহরী। নির্যাতনের শিকার শিহাব হোসেন উপজেলার বাগাচারা গ্রামের খোরশেদ আলমের ছেলে।

জানা যায়, মোবাইল চুরির অপবাদে ১৪ বছর বয়সী ওই শিশুর হাত-পা বেঁধে লাঠি দিয়ে পেটায় স্টেশনের নাইট গার্ড। এরপর হাত-পা বাঁধা অবস্থায় ঘরে আটক রাখে শিশুটিকে। পরে শিশুটির বাবা-মা ও এলাকাবাসী জানতে পেরে বেলা ১১টার দিকে তাকে উদ্ধার করে।

এঘটনায় স্থানীয় লোকজনের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভের ও উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। ঘটনার খবর পেয়ে নওহাটামোড় ফাঁড়ি পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে উত্তেজিত লোকজনকে শান্ত করেন এবং অভিযান চালিয়ে শিশু নির্যাতনকারী বকুলকে আটক করে মহাদেবপুর থানা হেফাজতে নেয়। বর্তমানে নির্যাতনের শিকার শিশুটি তার পরিবারের জিম্মায় রয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে স্থানীয় নওহাটামোড় পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এস আই জিয়াউর রহমান জিয়া জানান, ঘটনার খবর পেয়ে ভিকটিমকে উদ্ধার করি। পরে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে আটক করে মহাদেবপুর থানা হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে তার বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।


মন্তব্য