স্ত্রীকে শাসনে রাখতে পারেনা, ওমর সানীর বিচার আগে হওয়া উচিত: ঝন্টু

স্ত্রীকে শাসনে রাখতে পারেনা, ওমর সানীর বিচার আগে হওয়া উচিত: ঝন্টু
ঝন্টু-ওমর সানী-মৌসুমী   © টিডিসি ফটো

জায়েদ খান ও ওমর সানির ঘটনায় কয়েকদিন ধরে উত্তাল চলচ্চিত্রপাড়া। এবার বরেণ্য নির্মাতা দেলোয়ার জাহান ঝন্টু জায়েদ খান-মৌসুমী-ওমর সানীর ত্রিমুখী দ্বন্দ্বে মুখ খুললেন।

তিনি মূলত এ ঘটনার জন্য ওমর সানিকেই দোষী মানছেন। তার বক্তব্য, ওমর সানির বিচার আগে হওয়া উচিত৷ সে স্বামী। কেন স্ত্রীকে সে শাসনে রাখতে পারবে না? কেন তার অভিযোগের পর স্ত্রী তারই বিরুদ্ধে যাবে? ওর মতো নায়ক এদেশে কয়টা? হিট সুপারহিট সব সিনেমা দিয়েছে ওমর সানী। প্রেম করে মৌসুমীকে বিয়ে করেছে।

তিনি বলেছেন, ‘মৌসুমীকে নিয়ে কি বলব, নিজেই আসলে বুঝে উঠতে পারছি না। জায়েদ খানের মতো ছেলের সাথে ওর কিসের বন্ধুত্ব? দেশে বন্ধুত্ব করার মতো নায়কের অভাব পড়েছে? সারাদেশের মানুষ মৌসুমীকে এক নামে চেনে, জানে ও সম্মান করে। তার তো সেদিকে ভাবা উচিত। আমি আসলে হতাশ। ’

আরও পড়ুন: নটরডেমের ছাত্র ছিলেন সিয়াম, ঢাবি ছেড়ে ব্যারিস্টারি পড়েন লন্ডনে

এই পরিচালক আরও বলেন, 'সানি-মৌসুমীর উচিত এসব ঝামেলা মিটিয়ে নেয়া৷ নিজেরা বসে আলাপ করে সব ভুল সংশোধন করা। আমি ওমর সানির একটা কথায় খুশি হয়েছি, সে তার ছেলেমেয়েকে অভিভাবক মেনে তাদের উপর সব সিদ্ধান্ত ছেড়ে দিয়েছে৷ সন্তানরা বিচারক হলে তাদের সংসার ও তাদের জন্য ভালোই হবে আমার মনে হয়।'

প্রসঙ্গত, ওমর সানী অভিযোগ করেছেন, জায়েদ তার ২৭ বছরের সংসার ভাঙার চেষ্টা করেছেন। তার স্ত্রী মৌসুমীকে ‘বিরক্ত ও হয়রানি’ করেছেন। এ জন্য বিয়ের অনুষ্ঠানে জায়েদকে চড় মেরেছেন তিনি। তার জবাবে জায়েদ তাকে অস্ত্র বের করে গুলি করার হুমকি দিয়েছেন। এদিকে, জায়েদ বলছেন, ওমর সানী তাকে চড় মারেননি। শুধু তাই নয়, জায়েদের কাছে পিস্তল ছিল না। এদিকে, ওমর সানী জায়েদের বিরুদ্ধে সংসার ভাঙার অভিযোগ এনে শিল্পী সমিতিতে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। তবে মৌসুমী বলেছেন, ‘জায়েদ ভালো ছেলে। জায়েদ তাকে কখনই বিরক্ত বা হয়রানি করেনি। বরাবরই সম্মান করেছে।’


x