পঞ্চম শ্রেণির মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে

অন্ত:সত্ত্বা
প্রতীকী ছবি

পঞ্চম শ্রেণির এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে (১৪) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। শুধু তাই নয়; ধর্ষণের পর অন্ত:সত্ত্বা হয়ে যাওয়ায় ওই ছাত্রীকে অবৈধভাবে গর্ভপাত করানোর অভিযোগ করেছে ওই ছাত্রীর পরিবার।

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম পৌরসভার বেংকান্দা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় মাদ্রাসা ছাত্রীর বড় ভাই বৃহস্পতিবার রাতে পাটগ্রাম থানায় মামলা করেছেন। মামলা দায়েরের পর পুলিশ রাতেই অভিযুক্ত ধর্ষক রাব্বি ইসলামকে (২০) গ্রেপ্তার করে। রাব্বি একই গ্রামের রহমত আলীর ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, মাদ্রাসা ছাত্রীর বাবা মারা যাওয়ার পর থেকে সে তার ভাইয়ের সাথেই থাকে। তার ভাই বিভিন্ন বাজারে ঝালমুড়ি বিক্রি করে। আর মা হোটেলে কাজ করে। বাড়িতে ওই ছাত্রী একা থাকার সুযোগে রাব্বি তাকে বিকয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করে। পরে ছাত্রীটি অন্ত:সত্ত্বা হয়ে পড়লে তাকে ওষুধ খাইয়ে গর্ভপাত করায়। পরে ছাত্রীটি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করায়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে পাটগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমন কুমার মহন্ত বলেন, ভুক্তভোগীর বড় ভাইয়ের অভিযোগ দায়েরের পরই আমরা আসামীকে গ্রেফতার করেছি। আজ শুক্রবার তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ