স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে নিয়োগ পাবেন মাধ্যমিকের ২১৫৫ শিক্ষক

সরকারি বিদ্যালয়
শ্রেণিকক্ষে শিক্ষক  © ফাইল ছবি

২০২০ সালের ডিসেম্বরে সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিসেবে চূড়ান্তভাবে বাছাই হন ২১৫৫ জন। কিন্তু পাঁচ মাসের বেশি সময়েও কর্মস্থলে যোগ দিতে পারেননি সুপারিশপ্রাপ্তরা। দ্রুত পুলিশ ভেরিফিকেশন ও স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে তাদের নিয়োগ দেওয়া শুরু হবে বলে জানিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর।

জানা গেছে, পিএসসি ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বিষয়ভিত্তিক শিক্ষক নিয়োগের জন্য একটি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। বিজ্ঞপ্তির লিখিত পরীক্ষা ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত হয়। মৌখিক পরীক্ষা নেয়ার পর পিএসসি গত বছরের ২৯ ডিসেম্বর চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করে এবং দুই হাজার ১৫৫ জন প্রার্থীকে নিয়োগের জন্য সুপারিশ করে। কিন্তু চূড়ান্তভাবে বাছাই হওয়ার পর পাঁচ মাসের বেশি সময়েও তারা নিজ কর্মস্থলে যোগদান করতে পারেননি। পাঁচ মাসের বেশি সময়েও নিয়োগ না পাওয়ায় সুপারিশপ্রাপ্তদের মধ্যে হতাশা তৈরি হয়েছে।

আরো পড়ুন একসঙ্গে খুলবে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, পিছিয়ে যাচ্ছে এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা

মাউশি সূত্রে জানা গেছে, তিন মাস আগে সুপারিশকৃত প্রার্থীদের ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। তবে যাচাই প্রক্রিয়া এখনও শেষ হয়নি।

করোনার কারণে কার্যক্রম শেষ করতে বিলম্ব হচ্ছে জানিয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরে পরিচালক (বিদ্যালয়) অধ্যাপক মো. বেলাল হোসাইন সংবাদমাধ্যমকে জানান, পিএসসির পাঠানো তালিকাভুক্তদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষ হলে তাদের নিয়োগ দেয়া শুরু হবে। এজন্য দ্রুত পুলিশ ভেরিফিকেশন ও স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষ করতে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হবে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ