খুকৃবিতে ভিসির স্ত্রী ছেলে মেয়ের নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত

খুকৃবিতে ভিসির স্ত্রী ছেলে মেয়ের নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত
  © ফাইল ছবি

খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুকৃবি) উপাচার্যের বিরুদ্ধে স্ত্রী-ছেলে-মেয়েকে নিয়োগ দিতে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। এতে এ অভিযোগের পর ওই নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিতের নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের জ্যেষ্ঠ সহকারী সচিব নীলিমা আফরোজ স্বাক্ষরিত পত্রে এই নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

ওই চিঠি হাতে পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার।

জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের মাইক্রোবায়োলজি অ্যান্ড পাবলিক হেলথ বিভাগের অধ্যাপক, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রভাষক এবং প্রশাসনিক শাখায় কর্মকর্তা/সমমান (৯ম গ্রেড) পদের নিয়োগ পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে। বিষয়টি প্রকাশ হওয়ার পর খুলনাজুড়ে বেশ আলোচনার সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে, উল্লিখিত পদগুলোতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. শহীদুর রহমান খানের স্ত্রী, মেয়ে এবং ছেলে আবেদন করেন। বিষয়টি নিয়ে বেশ আলোচনার সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে উপাচার্য নিজেই নিয়োগ কমিটিতে উপস্থিত না থাকার আবেদন করেন মন্ত্রণালয়ে।

পরবর্তী সময়ে মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে মাইক্রোবায়োলজি অ্যান্ড পাবলিক হেলথ বিভাগের অধ্যাপক নিয়োগ বোর্ডের জন্য যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এবং অন্য দুটি নিয়োগ বোর্ডের জন্য গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এর মধ্যে গত ৯ ডিসেম্বর ফের মন্ত্রণালয় থেকে তিনটি পদেই নিয়োগ কার্যক্রম পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত স্থগিত করা হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে খুকৃবি’র ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার ডা. খন্দকার মাজহারুল আনোয়ার বলেন, মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক এমন পত্র এসেছে। এটা আমি রিসিভ করেছি।

অন্যদিকে খুকৃবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. শহীদুর রহমান খান বলেন, নিয়োগ কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশনা দিয়েছে মন্ত্রণালয়। পরবর্তী নির্দেশনা পেলেই কার্যক্রম আবার শুরু করা হবে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ