ঢাবির ‘ক’ ইউনিটে তুমুল প্রতিযোগিতা, পরীক্ষা শতভাগ সুষ্ঠু: ভিসি

কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন ঢাবি উপাচার্য
কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন ঢাবি উপাচার্য  © টিডিসি ফটো

তুমুল প্রতিযোগিতার মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। তিনি বলেছেন, এ ভর্তি পরীক্ষা শতভাগ সুষ্ঠু পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (১০ জুন)  বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় কার্জন হল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

ঢাবি উপাচার্য বলেন, ভর্তি পরীক্ষা বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মান-মর্যাদা বৃদ্ধির একটি বড় সূচক। ভালো ব্যবস্থাপনার মধ্যদিয়ে এটি অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে যে অসাধু ও অশুভ চক্র মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে তাদের ধরে আইনের আওতায় আনার যে প্রত্যয় সেটি আমরা করতে পেরেছি। ডিজিটাল জালিয়াতিসহ অন্যান্য উপায়ে যারা ভর্তি হয়েছে তাদেরকেও আমরা শনাক্ত করেছি।

তিনি বলেন, এবার ‘ক’ ইউনিটে ১৮৫১টি আসনের বিপরীতে ১ লাখ সাড়ে ১৫ হাজার পরীক্ষা দিয়েছেন। এরমধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মোট ৬৩ হাজার শিক্ষার্থী পরীক্ষা এবং ঢাকার বাইরে ৫২ হাজার শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন। সবকিছু মিলিয়ে তুমুল প্রতিযোগিতা হবে এই ইউনিটে। এখানে পাঁচটি অনুষদ এবং পাঁচটি ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীরা পড়তে আসে। ফলে এর পরিধিও অনেক বড়। শতভাগ সুষ্ঠু পরিবেশে পরীক্ষা হয়েছে।

আরও পড়ুন: ঢাবির ‘ক’ ইউনিটের পরীক্ষা শেষ, প্রশ্ন দেখুন এখানে

অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে ঢাবি উপাচার্য বলেন, একটি পরিবর্তন আমাদের লাগবে। ভর্তি পরীক্ষার দিন যখন ব্যাপক জনসমাগম হয়; তখন আমরা আহ্বান করি যেন যানবাহন, রিকশা, অন্যান্য গাড়ি কম প্রবেশ করে। পরীক্ষার্থীদের অভিভাবক ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা যেন কম ভীড় করেন। কারণ আমাদের সমন্বয়করা পরীক্ষা ব্যবস্থাপনায় সকল সুযোগ-সুবিধা রাখেন। কাজেই শিক্ষার্থীদের সক্ষম করে গড়ে উঠতে দেওয়া আমাদের কর্তব্য।

তিনি আরও বলেন, আপনাদের অনুরোধ করব তাদের সবার বয়স এখন ১৮ বছর। তারা এখন দক্ষ, বুদ্ধিমান। তাদেরকে একা ছেড়ে দিন। সমাজ-সংস্কৃতি-দেশের মানুষের সঙ্গে তাদের নিজেদের মত করে নানাভাবে পরিচয় ঘটুক। তাহলেই তারা ভালো গ্র্যাজুয়েট হিসেবে গড়ে ওঠার শক্তি পাবে।


x