ভিসি ছাড়াই চলছে ৩৯ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়

ভিসি
ইউজিসি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়  © ফাইল ছবি

দেশে ৩৯টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য ছাড়াই তাদের শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করছে। আর উপ-উপাচার্য ছাড়াই চলছে ৮২টি বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ এই দুটি পদ ফাঁকা থাকায় প্রশাসনিক কার্যক্রম ভেঙে পড়ার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার মান কমে যাচ্ছে বলে অভিমত সংশ্লিষ্টদের।

তদারকি সংস্থা বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) বলছে, বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সমাবর্তনে ভিসিরাই সনদে স্বাক্ষর করবেন। উপাচার্য না থাকা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর গ্রাজুয়েটদের যে সনদ দেওয়া হয় সেটির আইনগত কোনো বৈধতা নেই।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, দেশে বর্তমানে ১০৮ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। এর মধ্যে উপাচার্য ছাড়াই চলছে ৩৯টি বিশ্ববিদ্যালয়, উপ-উপাচার্য নেই ৮২টিতে, ৫১টি বিশ্ববিদ্যালয়ে ট্রেজারের পদ শূন্য। আর তিনটি পদই শূন্য রয়েছে এমন বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা ২১টি। রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য কর্তৃক নিয়োগপ্রাপ্ত ব্যক্তি ছাড়াই চলছে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো।

এ প্রসঙ্গে ইউজিসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. কাজী শহীদুল্লাহ গণমাধ্যমকে বলেন, ভিসি, ট্রেজারার ছাড়া কোনো বিশ্ববিদ্যালয় চলতে পারে না। কিছু বিশ্ববিদ্যালয় এসব পদে নিয়োগ দিতে চায় না। আবার অনেক বিশ্ববিদ্যালয় অযোগ্য লোকদের নিয়োগ দিতে তালিকা পাঠায়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শীর্ষ পদে এই অযোগ্য ব্যক্তিদের আমরা নিয়োগ দিতে পারি না। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন না মেনে কোনো বিশ্ববিদ্যালয় চালাতে দেওয়া হবে না বলেও জানান তিনি।

উপাচার্য ছাড়াই কার্যক্রম পরিচালনা করা বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হলো- ইউনিভার্সিটি অব ডেভেলপমেন্ট অল্টারনেটিভ, নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ, আশা ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ, গ্রিন ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিক, গণ বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি,  শান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি, এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, দি মিলেনিয়াম ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব সাউথ এশিয়া, প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্সেস, প্রাইম এশিয়া ইউনিভার্সিটি, অতীশ দীপঙ্কর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি, হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ, ঈশা খাঁ ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, এক্সিম ব্যাংক কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ব্রিটানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়, চিটাগাং ইনডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি, নটর ডেম বিশ্ববিদ্যালয়, কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, সিসিএন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজি খুলনা, রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়, ইউনিভার্সিটি অব গ্লোবাল ভিলেজ, ট্রাস্ট ইউনিভার্সিটি বরিশালসহ আরও বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়।


মন্তব্য

x