ভারতে মেডিকেলের নিট পিজি পরীক্ষা স্থগিত

ভারতে নিট পিজি পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে
করোনার কারণে ভারতে নিট পিজি পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে  © ইন্টারনেট

ভারতজুড়ে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে দৈনিক করোনা সংক্রমণের সংখ্যা। মহামারির জেরে একের পর এক সর্বভারতীয় পরীক্ষা বাতিল করেছে কেন্দ্র। সম্প্রতি সিবিএসইর দশম শ্রেণির পরীক্ষা বাতিল ও দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা পিছোনোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। আর এবার স্নাতকোত্তর পর্যায়ের ডাক্তারি প্রবেশিকা পরীক্ষা নিট পিজি-২০২১ প্রায় চার মাস পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র।

আগামী ৩১ অগাস্টের আগে এ পরীক্ষা কোনওভাবেই হচ্ছে না বলেই সোমবার জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও পরীক্ষার অন্তত এক মাস আগেই পরীক্ষার নতুন দিনক্ষণ ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছে সরকার। জানানো হয়েছে, এই পদক্ষেপের ফলে আরও বেশি সংখ্যক ডাক্তার করোনা ডিউটির জন্য উপস্থিত থাকতে পারবেন।

গত ১৮ এপ্রিল এ পরীক্ষাটি হওয়ার কথা থাকলেও সারা দেশে বাড়তে থাকা করোনা সংক্রমণের জেরে ও পরীক্ষার্থীদের দাবি মেনে এই পরীক্ষা পিছিয়ে দিতে বাধ্য হয় সরকার। ইতিমধ্যেই এই পরীক্ষার অ্যাডমিট কার্ড বিতরণের প্রক্রিয়াও সম্পন্ন হয়ে গিয়েছিল বলে খবর। এখনও পর্যন্ত এ পরীক্ষার নতুন দিনক্ষণের বিষয়ে কিছুই জানানো হয়নি।

মূলত এমবিবিএস পাস করা চিকিৎসকরা এ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। তাই এই পরীক্ষা পিছিয়ে যাওয়ার ফলে আরও বেশি সংখ্যক ডাক্তার অথবা সদ্য ডাক্তারি পাশ করা পড়ুয়ারাদের করোনা পরিস্থিতিতে আরও বেশি সংখ্যায় পাওয়া যাবে বলে মনে করছে কেন্দ্র।

এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ চিকিৎসকরা এমডি/এমএস/পিজি ডিপ্লোমার মতো বিভিন্ন বিষয়ের উপর স্পেসালাইজেশন কোর্সে ভর্তি হওয়ার যোগ্যতা অর্জন করেন। এর আগে এই পরীক্ষার গুরুত্ব বিচার করে পরীক্ষা না পিছোনোর সিদ্ধান্ত নিলেও পরবর্তী সময়ে সেই সিদ্ধান্ত বাতিল করা হয়।

ভারতে মহামারির বিরুদ্ধে লড়াই করে চলেছেন ডাক্তার, নার্স সহ অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীরা। হাসপাতালে তিল ধরানোর জায়গা পর্যন্ত নেই। এমন সময়ে পরীক্ষা পিছিয়ে দিয়ে আপাতত করোনা পরিস্থিতিতে ডাক্তারের সংখ্যায় কমতি রুখল কেন্দ্র। খবর: এইসময়।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ