ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে বিবাহিত ও শ্রমিক নেতা নিয়ে কমিটি গঠনের অভিযোগ

ঢাকা
মানববন্ধনে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা  © সংগৃহীত

সদ্যঘোষিত বরিশাল মহানগর কমিটিতে বিবাহিত, অছাত্র, বয়স বহির্ভূতদের এবং শ্রমিক নেতা নিয়ে কমিটি গঠনের অভিযোগ এনে তা বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন করেছে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা।

বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) বঙ্গবন্ধু এভিনিউ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগের প্রায় তিন শতাধিক নেতাকর্মী এতে অংশ নেন।

ছাত্রলীগের কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে সাংগঠনিক গঠনতন্ত্র মেনে কমিটি দেওয়ার বিধান থাকলেও বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগের কমিটির ক্ষেত্রে এর সম্পূর্ণ বিপরীত ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি মানববন্ধনে অংশ নেওয়া ছাত্রলীগ নেতা কর্মীদের। 
এ সময় তাদের নবগঠিত কমিটির আহ্বায়ক এবং যুগ্ম আহ্বায়কদের বিয়ের ছবি ও সন্তানদের ছবি সংবলিত প্ল্যাকার্ড হাতে অংশ নিতে দেখা যায়। 

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া পদবঞ্চিত নেতাকর্মীদের অভিযোগ, ‘নবগঠিত কমিটির আহ্বায়ক মো. রইজ আহমেদ মান্নার নামে একাধিক মামলা রয়েছে, এছাড়া নেই ছাত্রত্ব। বর্তমানে তিনি স্থানীয় শ্রমিক নেতা। তিনি বিয়ে করেছেন অনেক আগেই। দ্বিতীয় বিয়েও করেছেন তিনি। দুই বউয়ের সংসারে রয়েছে ২টি সন্তান। এছাড়া নবগঠিত কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক মো. মাইনুল ইসলাম এবং আরিফুর রহমান শাকিল উভয়ের নেই ছাত্রত্ব। সম্প্রতি ঘটা করে উভয়েই বিয়ে করেছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সেসব ছবি রয়েছে। এছাড়া উভয়ের বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ। এছাড়া অনেকের বিরুদ্ধে রয়েছে মাদক সংশ্লিষ্টতা ও বিয়ে করার অভিযোগ।’

বাবু সরদার বলেন, ‘গঠনতন্ত্র না মেনে বিবাহিত, অছাত্র এবং শ্রমিকদের নিয়ে বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি গঠন করা হয়েছে। আমরা যারা নিয়মিত ছাত্র, দীর্ঘদিন সংগঠনের জন্য কাজ করছি তাদের বাদ দেওয়া হয়েছে। আমরা এ কমিটিকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করছি। এ কমিটি বাতিলের দাবিতে আমরা বরিশালে মানববন্ধন করেছি, আজ ঢাকায় করছি। কমিটি বাতিল না হওয়া পর্যন্ত আমরা আন্দোলন করে যাব।’

রেজানুর রহমান নিয়ন বলেন, ‘আহবায়ক, যুগ্ম আহবায়কসহ প্রায় সবাই বিবাহিত ও অছাত্রদের নিয়ে একচেটিয়া একটা পকেট কমিটি করা হয়েছে। দ্রুত এ কমিটি বাতিল করে নতুন কমিটি ঘোষণার করার জন্য আমরা কেন্দ্রীয় কমিটির দৃষ্টি আকর্ষণ করছি এবং প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি।’

তবে এ অভিযোগের বিষয়ে জানতে ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যকে মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করা হলেও রিসিভ না করায় তাদের মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

দীর্ঘ ১১ বছর পর গত শনিবার ২৩ জুলাই বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগের নতুন আহ্বায়ক কমিটি গঠন হয়েছে। বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় এবং সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত আগামী তিন মাসের জন্য ৩২ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি প্রকাশ করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। মো. রইজ আহমেদ মান্নাকে আহ্বায়ক করে নবগঠিত কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক করা হয়েছে মো. মাইনুল ইসলাম এবং আরিফুর রহমান শাকিলকে। এছাড়া বাকি ২৯ জনকে সদস্য করা হয়েছে। 


x

সর্বশেষ সংবাদ