রাজশাহীতে ঝোড়ো হাওয়া-বৃষ্টি, মসজিদে ঈদ জামাত 

খাঁ
বৃষ্টি  © সংগৃহীত

রাজশাহীতে সকাল ৮টায় নগরীর হযরত শাহ মখদুম রূপোস (রহ.) কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবার কথা ছিল। এ উপলক্ষে সব আয়োজনও ছিল। তবে ভোর হতেই দমকা হাওয়া এবং বৃষ্টিতে সব আয়োজন ভেসে গেছে।

একই সময়ে ঈদগাহ ময়দানের পরিবর্তে প্রধান জামাত হযরত শাহমখদুম (রহ.) দরগা জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ জামাতে ইমামতি করেন জামিয়া ইসলামিয়া শাহমখদুম (রহ.) মাদরাসার অধ্যক্ষ মুফতি শাহাদত আলী।

তার সহকারী হিসেবে ছিলেন নগরীর হেতেমখাঁ বড় মসজিদের পেশ ইমাম মুফতি ইয়াকুব আলী ও হযরত শাহমখদুম (রহ.) দরগা জামে মসজিদের ইমাম মো. মুহিবুল্লাহ।

বৈরী আবহাওয়ার কারণে নগরীর সকল মসজিদে মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। মসজিদ ও ঈদগাহ কমিটি সকাল থেকেই মাইকে মাইকে এ ঘোষণা দেয়। 

এদিকে ঈদুল ফিতরের দিনে সারাদেশে বৃষ্টি হওয়ার পূর্বাভাস আগেই জানিয়েছিল আবহাওয়া অধিদপ্তর। এদিন ভোর হতেই সারাদেশের বিভিন্নস্থানে বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে। 

মঙ্গলবার (৩ মে) সকালে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ ড. আবুল কালাম মল্লিক জানান, দেশের বিভিন্নস্থানে বৃষ্টি হচ্ছে। দেশের চার জায়গায় ৮৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ডও করা হয়েছে। 

আবহাওয়াবিদ আরও বলেন, এ মুহূর্তে রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ, কুমিল্লায় বৃষ্টি হচ্ছে। পাশাপাশি ঢাকার পার্শ্ববর্তী নরসিংদী জেলায় বৃষ্টি হচ্ছে। তবে ঢাকায় কিছুটা পরে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। 

তিনি বলেন, ঈদের দিন সারাদেশেই বৃষ্টি হওয়ার পূর্বাভাস রয়েছে। দুপুর ১২টার পর খুলনা, বরিশাল, কুমিল্লা ও নোয়াখালীর দিকে বৃষ্টি হবে। তবে ভোর থেকে ময়মনসিংহ, রাজশাহী, দিনাজপুর, পাবনা, বগুড়া, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও নওগাঁয় বৃষ্টি হচ্ছে। আর এখনকার বৃষ্টির সঙ্গে ঝড়ো হাওয়াসহ বজ্রবৃষ্টি হবে। কোথাও কোথাও হালকা থেকে মাঝারি, কোথাও কোথাও ভারী বৃষ্টি হবে।

এ আবহাওয়াবিদ বলেন, এরইমধ্যে রাজশাহীতে প্রায় ৪১ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া নওগাঁয় ৩৮ মিলিমিটার, তেঁতুলিয়ায় ২ মিলিমিটার, রাজারহাটে ৩ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। মোট হিসেবে এই চার জায়গায় প্রায় ৮৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। দেশব্যাপী বৃষ্টির ফলে তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে।


x