শিক্ষা ক্যাডারের সব সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছে: শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষা ক্যাডারের সব সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছে: শিক্ষামন্ত্রী
  © টিডিসি ফটো

বাংলাদেশকে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে এগিয়ে নিতে শিক্ষাই একমাত্র মূল হাতিয়ার উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, আগামী দিনের যে জায়গাটিতে বাংলাদেশকে নিয়ে যেতে চাই সে জায়গায় পৌঁছবার সবচেয়ে বড় হাতিয়ার শিক্ষা। সেই শিক্ষার মূল কারিগর শিক্ষক। আমি নিজেও একজন শিক্ষকের সন্তান হিসেবে অত্যন্ত গর্বিত। আমি আশা করি আপনাদের সকলকে নিয়ে আমরা আমাদের কাঙ্খিত জায়গায় পৌঁছে যেতে পারব।

আজ সোমবার (২৫ এপ্রিল) ঢাকা কলেজে শহীদ আ. ন. ম. নজীব উদ্দিন খান খুররম অডিটোরিয়ামে বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতির ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিক্ষাবান্ধব এবং শিক্ষকবান্ধব মানুষ। তাঁর সামনে যুক্তিসঙ্গতভাবে যেকোনো বিষয় তুলে ধরলে সহজেই পাওয়া যায়। আন্দোলনের প্রয়োজন হয়না। শিক্ষা ক্যাডারের অপ্রাপ্তি ও দাবি-দাওয়াগুলো সমাধানের জন্য যথাযথভাবে তাঁর কাছে তুলে ধরার হবে।

এসময় মন্ত্রী বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতির নবনির্বাচিত কমিটিকে অভিনন্দন জানিয়ে সবাইকে একসাথে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে আরও বলেন, সবাই একযোগে কাজ করে সমস্যার সমাধানে এগিয়ে আসতে হবে। সবাইকে একসাথে নিয়ে কাজ করতে চাই। শিক্ষা ক্যাডারের সকল সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছে। কর্মকর্তা পদায়নে যথাযথ গ্রেড পদ্ধতি কার্যকর সহ নানাবিধ সমস্যা আমাদের সামনে এসেছে৷ সেই সমস্যাগুলো দূর করতে সবার কাজ করতে হবে।

বঙ্গবন্ধু প্রণোদিত শিক্ষাব্যবস্থা সম্পূর্ণরূপে বাস্তবায়ন করতে বদ্ধপরিকর জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, শিক্ষা ব্যবস্থাযর মহান যে স্থান অর্জন করার আকাঙ্ক্ষা আমাদের তা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেখিয়ে গেছেন। শিক্ষাব্যবস্থাকে যেমন করতেন তিনি স্বপ্ন দেখেছিলেন, দিকনির্দেশনা দিয়েছিলেন, শিক্ষা কমিশন গঠন করেছিলেন তার আদলে অনেক কিছুই বাস্তবায়নের অপেক্ষায় রয়েছে। আমরা সেটি সম্পূর্ণরূপে বাস্তবায়ন করব।

একইসাথে পৌঁছাতে হলে শিক্ষকের সামাজিক আর্থিক নিরাপত্তা অত্যাবশ্যক বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

ইফতার মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন, বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতির সভাপতি ও মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (কলেজ ও প্রশাসন) বিভাগের পরিচালক প্রফেসর মোঃ শাহেদুল খবির চৌধুরী।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মোঃ আবু বকর ছিদ্দীক, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মোঃ কামাল হোসেন, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক নেহাল আহমেদ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক নেহাল আহমেদ বলেন, শিক্ষা ক্যাডারের সমস্যা সমাধানে আলাদা কমিশন গঠন করতে হবে। সমস্যা সমাধানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ২০১৬ সালে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন একটি কমিটি গঠন করা হলেও পরবর্তীতে তার সুফল পাওয়া যায়নি৷ যদিও একশ দিনের মধ্যে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়ার কথা ছিল। আমরা চাই একটি সুন্দর সমাধান হোক।

ইফতার মাহফিলে সারাদেশের বিভিন্ন সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ, অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক, সহকারী অধ্যাপক ও প্রভাষকরা অংশগ্রহণ করেন।


x

সর্বশেষ সংবাদ