নিরাপদে আছেন সুরমা নদীতে আটকে পড়া সেই শিক্ষার্থীরা

ঢাবি
ঢাবি শিক্ষার্থীরা  © সংগৃহীত

সিলেট ও সুনামগঞ্জের বন্যার পানিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আটকে পড়া শতাধিক শিক্ষার্থী এখন নিরাপদে আছেন। সেনাবাহিনীর একটি টিম তাদের নিয়ে সিলেট ক্যান্টনমেন্টের দিকে রওনা দিয়েছেন। বিষয়টি দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে নিশ্চিত করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আবুল মনসুর আহমেদ। 

অধ্যাপক আবুল মনসুর বলেন, গতকাল রাতে শিক্ষার্থীরা যখন আটকে গিয়েছিল আমি জানার সাথে সাথে সেনাবাহিনীর আইএসপিআর জাহিদ মালেকের, সুনামগঞ্জ ক্যান্টনমেন্টের রেসকিউ কমান্ডার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল সওকত, ওই জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মিজানুর রহমানের সাথে কথা বলে তাদেরকে উদ্ধারের জন্য অনুরোধ করি।তারা আজকে সকালে সেখানে সেনাবাহিনীর একটি টিম পাঠান। কিছুক্ষণ আগে তাদেরকে উদ্ধার করে সুনামগঞ্জের ছাতকে নিয়ে আসে। বর্তমানে তাদেরকে সিলেট ক্যান্টনমেন্ট নিয়ে আসা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: সিলেটে বন্যায় ইটনা-মিঠামইন সড়ক কতটুকু দায়ী

এর আগে গতকাল (শনিবার) দুপুর দুইটার দিকে পুলিশ লাইন্স থেকে ‘কপোতাক্ষ অনির্বাণ ট্যুরিজম বোট’ নামের একটি লঞ্চে করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৫ জন ও অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থীসহ শতাধিক শিক্ষার্থী সিলেট শহরের দিকে রওনা করেন। কিন্তু রাত সাড়ে আটটার দিকে লঞ্চের ইঞ্জিন নষ্ট হয়ে গেলে তারা সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার সংলগ্ন সুরমা নদীর চরে আটকা পড়েন।

উল্লেখ্য, গত ১৪ জুন বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস থেকে সুনামগঞ্জ ভ্রমণে গিয়ে বন্যায় আটকা পড়েন ঢাবির ২১ শিক্ষার্থী। পরে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে তাদের পানসী রেস্তোরাঁ থেকে উদ্ধার করে গত শুক্রবার বিকেলে জেলা পুলিশ লাইনসে নেওয়া হয়।  


x