১৩৮ নিয়োগসহ রাবির বিতর্কিত সেই ‘নিয়োগ নীতিমালা’ স্থগিত করলেন হাইকোর্ট

হাইকোর্ট
  © ফাইল ফটো

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) সেই ‘বিতর্কিত নিয়োগ নীতিমালা-২০১৭’ তিন মাসের জন্য স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। তাছাড়া সাবেক ভিসি প্রফেসর ড. এম আব্দুস সোবহান গত ৫ মে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন করে যে ১৩৮ জন শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীকে অ্যাডহকে (অস্থায়ী ভিত্তিতে) নিয়োগ দিয়েছিলেন তার সব কার্যক্রমও একই সময়ের জন্য স্থগিত করা হয়েছে।

একইসঙ্গে উচ্চ আদালতের দ্বৈত বেঞ্চ প্রফেসর ড. সোবহানের বিরুদ্ধে নজিরবিহীন দুর্নীতি অনিয়মের অভিযোগে কেন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে না- তা জানাতে সরকারসহ সংশ্লিষ্টদের ওপর রুল জারি করেছেন।

গত ৬ সেপ্টেম্বর জনস্বার্থে দায়ের করা একটি রিটের শুনানি শেষে বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও কামরুল হাসান মোল্লার উক্ত দ্বৈত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। জনস্বার্থে এই রিট করেন হাইকোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া।

এদিকে, আজ মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) এই রুল জারির আদেশ লিখিত আকারে প্রকাশিত হয়েছে। ওই আদেশের লিখিত কপি দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসের কাছে রয়েছে। আদেশে স্বাক্ষর করেছেন বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও কামরুল হাসান মোল্লা।

আদেশ সূত্রে জানা গেছে, আদালত আগামী ১৪ নভেম্বর রুলের জবাব দিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়, রাবি ভিসি ও দুর্নীতি দমন কমিশনকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আদেশে আরও বলা হয়েছে, রাবির সাবেক ভিসি প্রফেসর ড. এম আব্দুস সোবহানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ না করা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না- এই বিষয়ে রুলের জবাব দাখিল করতে হবে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে। একইসঙ্গে রাবির বিতর্কিত নিয়োগ নীতিমালা-২০১৭ এবং সাবেক ভিসির দেওয়া গণনিয়োগের কার্যক্রম ৩ মাস স্থগিত করা হয়েছে।

এই আদেশের ফলে বিতর্কিত নিয়োগ নীতিমালা-২০১৭ ও অ্যাডহকে দেওয়া নিয়োগের কার্যকারিতা আর অবশিষ্ট নেই বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ